• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:২৮ অপরাহ্ন

সাংবাদিক আবু আজাদের উপর হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সমাবেশ


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২৮, ২০২২, ১২:০৪ পূর্বাহ্ন / ১৯
সাংবাদিক আবু আজাদের উপর হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রামঃ চট্টগ্রাম রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় সংবাদ সংগ্রহ করতে যাওয়া ইংরেজি দৈনিক দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড এর স্টাফ করেসপন্ডেট সাংবাদিক আবু আজাদকে অস্ত্র ঠেকিয়ে জিম্মি ও মারধরের ঘটনায় চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে) প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। ২৭শে ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) ২০২২ ইং তারিখ সকাল সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব চত্বরে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এই সময় নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিক আবু আজাদ পেশাগত দায়িত্ব পালনে হামলার শিকার হয়েছে। এটাকে শুধু হামলা বললে কম হবে, এটা ‘বর্বরোচিত’ হামলা। আবু আজাদ আমাদের সহকর্মী। আবু আজাদ ওপর হামলা, সমস্ত সাংবাদিকের ওপর হামলা। এ হামলাকে আমরা কোনোভাবে মেনে নিতে পারি না। আমরা স্পষ্ট বার্তা দিতে চাই। এ হামলার মূল নির্দেশদাতা মহিউদ্দিন তালুকদার মোহনকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। আগামী তিনদিনের মধ্যে অপরাধীদের গ্রেফতার করা না হলে আবারও নতুন কর্মসূচি দেওয়া হবে।

সিইউজে যুগ্ম সস্পাদক সাইদুল ইসলামের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব আলী আব্বাস, সিইউজের সাধারণ সম্পাদক ম. শামসুল, সভাপতি তপন চক্রবর্তী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, সিইউজের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলী, বিএফইউজের সহ-সভাপতি শহীদ উল আলম, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সহ সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী ও বিএফইউজে নেতা আজহার মাহমুদ প্রমুখ । এ সময় সিইউজে’র অন্যন্যা নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। পরে সাংবাদিকদের অংশগ্রহণে সংক্ষিপ্ত এক প্রতিবাদ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে, সাংবাদিক আবু আজাদকে নির্যাতনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। একইসঙ্গে এ বিষয়ে তদন্তপূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করে কমিশনে আগামী ১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসককে বলা হয়েছে। গত সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) গণমাধ্যম পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা ফারহানা সাঈদ।

উল্লেখ্য, দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডের স্টাফ করেসপনডেন্ট সাংবাদিক আবু আজাদ পেশাগত দায়িত্ব পালনে করতে গত ২৫ ডিসেম্বর রোববার সকালে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নে অবৈধ ইটভাটার সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে হামলার শিকার হয়।

ঘটনার বর্ণনায় সাংবাদিক আবু আজাদ জানান, তিনি রাঙ্গুনিয়ায় অবৈধ ইটভাটার সংবাদ সংগ্রহ করতে ২৫ ডিসেম্বর সকাল ১০টার দিকে চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়কের মঘাছড়িতে পৌঁছান। সড়কের পাশে মাটি তুলে নামহীন ইটভাটার নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। ওই ছবি তুলতে গেলে স্থানীয় মেম্বার মহিউদ্দীন তালুকদার (মোহন) পাঁচ-ছয় জন লোক নিয়ে তার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে মারধর করেন। এরপর তাকে একটি সাদা রঙয়ের গাড়িতে তুলে মঘাছড়ি বাজারে নিয়ে যান। সেখানে প্রকাশ্যে তার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে মারধর করেন। পরে কার্যালয়ে নিয়ে বেঁধে রেখে নির্যাতন করেন। তার সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন, মানিব্যাগ ও আইডি কার্ড কেড়ে নেওয়া হয়। বিকাশ থেকে টাকা তুলে নেওয়া হয়। ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবিসহ তাকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়।

এর আগে সোমবার বিকেলে সাংবাদিক আবু আজাদ বাদি হয়ে রাঙ্গুনিয়া মডেল থানায় ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজ উদ্দিন চৌধুরী (৫৫), ইউপি সদস্য মহিন উদ্দিন তালুকদার মোহন (৪০), মোহনের সঙ্গী কামরান (৩০),কাঞ্চন তুড়ি (৩০) এর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৫-৭ জনকে আসামি করে হত্যাচেষ্টা, মারধর, টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেওয়া, অপহরণ এবং চাঁদাবাজির অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।

এদিকে, রাঙ্গুনিয়া মডেল থানা পুলিশ সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত পৌনে ১২টায় উপজেলার ঠান্ডাছড়ি এলাকা থেকে দায়ের করা মামলায় কাঞ্চন তুড়ি (৩০) আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে।

জানা যায়, আটককৃত আসামি কাঞ্চন তুড়ি এবিসি নামক ইটভাটার ম্যানেজার। ঘটনার দিন মামলার আসামি কাঞ্চন তুড়ি ও আসামি কামরান অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের নিয়ে সাংবাদিক আবু আজাদকে ঘিরে ফেলেন। পরে ইউপি সদস্য মোহনকে সহযোগিতা করে অস্ত্র ঠেকিয়ে জিম্মি করে ফেলেন।

এ বিষয়ে রাঙ্গুনিয়া মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) খাঁন নূরুল ইসলাম বলেন, মামলার ৩ নং আসামি কাঞ্চন তুড়িকে উপজেলার ঠান্ডাছড়ি এলাকা থেকে রাত পৌনে ১২টায় আটক করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান অব্যাহত আছে।