• ঢাকা
  • শনিবার, ২২ Jun ২০২৪, ০৪:১২ অপরাহ্ন

ঠাকুরগাঁওয়ে ১টি বিরল প্রজাতির গন্ধগোকুল উদ্ধার করেছে বনবিভাগ


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ৭, ২০২৩, ৭:০৫ অপরাহ্ন / ১০৩
ঠাকুরগাঁওয়ে ১টি বিরল প্রজাতির গন্ধগোকুল উদ্ধার করেছে বনবিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঠাকুরগাঁওঃ ঠাকুরগাঁও জেলা সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নে ১টি বিরল প্রজাতির গন্ধগোকুল উদ্ধার করেছে সোমবার পৌর শহরের ডিসি বস্তির শুভ নামে এক যুবক।শুভ সেটিকে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তরে জিম্মা দেন।

জানা যায়, রোববার সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের পল্লিবিদ্যুৎ নামক স্থানে কয়েকজন শিশু কাঠবিড়ালী ভেবে অসুস্থ অবস্থায় গন্ধগোকুলটিকে আটক করেন।বিষয়টি শুভ জানার পর কাঠবিড়ালী হিসেবে সেটিকে বাসায় নিয়ে আসেন এবং বাসায় বিভিন্ন ধরনের খাবার দিলেও গন্ধগোকুলটি কিছু না খাওয়ায় বিষয়টি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান

সাংবাদিকেরা প্রাণীটির ছবি তুলে ঠাকুরগাঁও বন বিভাগের কর্মকর্তাদের কাছে পাঠান। পরে বন বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয় এটি একটি বিরল প্রজাতির নিশাচর প্রাণী।এটি সাধারণত কোলাহলমুক্ত পরিবেশে ঘুরে বেড়ায়।তাই দ্রুত এটিকে বনে ছেড়ে দেওয়া প্রয়োজন।শুভ এটি জানার পর গন্ধগোকুলটি নিয়ে ঠাকুরগাঁও বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেছেন।

এ বিষয়ে,ঠাকুরগাঁও বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সফিউল আলম মন্ডল বলেন, ধারনা করা হচ্ছে এটি একটি গন্ধগোকুল। এটি মাঝারি আকারের স্তন্যপায়ী, নিশাচর প্রাণী।গাছ, বন-জঙ্গল কমে যাওয়ায় এদের সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে।আফ্রিকা,দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াসহ বিভিন্ন স্থানে এ প্রাণীটির বাস।এরা মূলত কীটপতঙ্গ,শামুক,ডিম-বাচ্চা,পাখি,ছোট প্রাণী, তাল-খেজুরের রস খেয়ে থাকলেও খাদ্যের অভাবে মুরগি,কবুতর ও ফল চুরি করে।ফল ও ফসলের ক্ষতিকর পোকামাকড় খেয়ে কৃষকের উপকারও করে থাকে এরা।ঠাকুরগাঁও বনবিভাগ কার্যালয়ের পাশ্ববর্তী জঙ্গলে এটিকে অবমুক্ত করা হয়েছে বলে জানা যায়।