• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন

সাভারে রং মিস্ত্রি সাজ্জাদ হত্যার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার 


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ১৫, ২০২৪, ৯:৫০ অপরাহ্ন / ৩০
সাভারে রং মিস্ত্রি সাজ্জাদ হত্যার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার 

মো. মাইনুল ইসলাম, সাভারঃ সাভারে  ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে ফার্নিচার রং মিস্ত্রি সাজ্জাদ হোসেন (২২) হত্যা মামলার প্রধান আসামী আলামিন ওরফে ক্রিম আলামিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার ১৪ ই এপ্রিল রাতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে আলামিনের গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি ধারালো সুইস গিয়ার উদ্ধার করে পুলিশ। আলামিন দীর্ঘদিন যাবত ছিনতাইসহ নানা ধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়িত থেকে অবৈধ উপায়ে সাভারের শপিং কমপ্লেক্স গুলোতে কসমেটিকসের দোকানে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের নকল ক্রিম সাপ্লাই দিয়ে আসছিল। ঘটনার আগে শুক্রবার (১২ এপ্রিল) রাত ১১ টার দিকে সাভার পৌরসভার বক্তারপুর কোট বাড়ি-আড়াপাড়া বালির মাঠে পেশাদার অপরাধীদের হাতে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয় সাজ্জাদ হোসেন। পরদিন নিহতের বাবা শাহিনুর ইসলাম শাহীন ওরফে নুরা বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন আসামিদের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত আসামিরা হলেন, কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার টাংগের বাজার বাগুয়ান গ্রামের জালাল বাবুর্চির ছেলে মো.আলামিন ওরফে ক্রিম আলামিন (১৯), সাভার পৌরসভার সবুজবাগ এলাকার সরোয়ার হোসেন ভান্ডারীর ছেলে মো.স্বপন ওরফে দস্যু স্বপন (২৮), কোটবাড়ী এলাকার সাজু হোসেনের ছেলে মো. রাব্বি ওরফে মুরগি রাব্বি (১৯) ও মো. ইয়াছিন (২০)। এছাড়া অজ্ঞাত আরো ৩ জনকে এই হত্যা মামলায় আসামী করা হয়। এদের মধ্যে সাভার মডেল থানাসহ দেশের বিভিন্ন থানায় দস্যু স্বপনের বিরুদ্ধে আরো ৫টি মামলার তথ্য দিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা জেলার সদ্য পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহিল কাফী, পিপিএম (বার)। এসময় ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাভার সার্কেল) শাহিদুল ইসলাম, সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শাহ্জামান পিপিএম, সাভার মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) নয়ন কারকুন ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মনিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ জানায়, নিহত সাজ্জাদ হোসেন সাভার পৌরসভার আড়াপাড়া এলাকার কফিল উদ্দিনের বাড়িতে বাসা ভাড়া নিয়ে সাভার উপজেলার হেমায়েতপুর এলাকায় একটি ফার্নিচারের দোকানে রংমিস্ত্রির কাজ করতেন। গত ১২ এপ্রিল রাত ৯ টার দিকে সাভার পৌরসভার বক্তারপুর কোটবাড়ি-আড়াপাড়া বালির মাঠ এলাকায় নিহত সাজ্জাদ হোসেন তার বন্ধু আলামিন, আলহাজ, পারভেজ, রায়হান, মাসুদ, বাপ্পী মিয়াসহ স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে গল্প করছিল। তাদের পাশ দিয়ে আলামিন ওরফে ক্রিম আলামিন তার সহযোগী রাব্বি ওরফে মুরগি রাব্বিসহ রিক্সা যোগে চাচ্ছিলেন এবং তারা সাজ্জাদসহ সঙ্গীদের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়েন। এসময় ওই দুজনের কাছে একটি ধারা‌লো সুইচ গিয়ার ছুরি পাওয়া গেলে নিহত সাজ্জাদ সঙ্গীয়দের কাছে ক্ষমা চেয়ে আলামিন ও রাব্বি ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এর দেড় ঘন্টা পর ওই এলাকার পেশাদার অপরাধী দস্যু স্বপনের নেতৃত্বে পুনরায় ক্রিম আলামিন, মুরগি রাব্বি, ইয়াছিনসহ আরো ২/৩ জন ঘটনাস্থলে আসে। এরপর কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সাজ্জাদকে ধারালো সুইচ গিয়ার দিয়ে ছুরিকাঘাত করে তারা সবাই পালিয়ে যায়। পরে সাজ্জাদকে দ্রুত উদ্ধার করে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানা যায়, নিহত সাজ্জাদ রাজাশন এলাকার আনোয়ার হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া রফিকুল ইসলামের মেয়ে ফাতেমা আক্তারকে (২১) ছয় বছর আগে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে সিদরাতুল মুনতাহা সাফা (৫) নামে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। নিহতের শ্বশুরবাড়ি চাঁদপুর জেলার মতলব থানার অলিপুর গ্রামে।

সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শাহ্জামান পিপিএম জানান, এজাহার ভুক্ত বাকি আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।