• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৭:১৭ অপরাহ্ন

সাংবাদিক শহিদুল মানুষের সুখ দুঃখের সংবাদ তুলে ধরতেন আজ সে নিজেই দুরারোগে আক্রান্ত


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ৩০, ২০২৩, ৩:০৯ অপরাহ্ন / ৪৩
সাংবাদিক শহিদুল মানুষের সুখ দুঃখের সংবাদ তুলে ধরতেন আজ সে নিজেই দুরারোগে আক্রান্ত

শেখ সাইফুল ইসলাম কবিরঃ পঞ্চগড়ের বরেণ্য মফস্বল সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম শহীদ দীর্ঘদিন থেকে দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে দিন যাপন করছেন। তিনি দূরারোগ্য অগ্নাশয়ে ক্যানসার, ডায়াবেটিসসহ নানা জটিল রোগে আক্রান্ত। তাঁর দ্রুত অপারেশন প্রয়োজন। জানা গেছে অগ্নাশয়ে ক্যানসার রোগের অপারেশনের জন্য তাঁকে ভারতে চিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছে চিকিৎসক। এই রোগের চিকিৎসা অত্যন্ত ব্যায়বহুল।

সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম শহীদ জানায়, পেটের ব্যাথা নিয়ে গত বছরের ২৩ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্যাস্ট্রো এন্ট্রোলোজি বিভাগে ভর্তি হন তিনি। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রাজিবুল আলমের তত্ত্বাবধানে নানা পরীক্ষা নিরীক্ষার পর অগ্নাশয়ে ক্যানসার রোগটি চিহ্নিত হয়। ডাক্তার রাজিবুল আলম তাঁকে ভারতের হায়দারাবাদে এশিয়ান ইন্সটিটিউট অব গ্রাস্ট্রোএন্ট্রোলজীতে চিকিৎসা এবং অপারেশন করার পরামর্শ দিয়েছেন । কিন্তু তার সেই সামর্থ্য নেই। শহরে একটি টিনশেড বাড়ি ও একটি মোটরবাইক ছাড়া স্থাবর-অস্থাবর কোন সম্পত্তি নেই। অবসরভাতা আর পত্রিকার সম্মানী দিয়ে সংসার চালাতেই হিশশিম খাচ্ছেন। মেয়ে জাবিতে আন্তর্জাতিক বিভাগে চতুর্থ বর্ষে পড়ছে।

সাংবাদিক শহীদুল ইসলাম শহীদ দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে সাংবাদিকতা পেশায় জড়িত। পঞ্চগড়ের সাংবাদিকতা জগতে তিনি কিংবদন্তি। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চাকুরি ছেড়ে দিয়ে ঝুঁকিপুর্ণ জেনেও তিনি সাংবাদিকতাকেই পেশা হিসেবে বেছে নেন। তিনি ১৯৮১ সালের শেষ দিকে দৈনিক বাংলার বাণীর মহকুমা সংবাদদাতা হিসেবে যোগ দেন। এর পর দৈনিক বাংলা, বাংলাদেশ টাইমস, বাংলাদেশ অবজারভার, দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি দি ডেইলি অবজারভার, দৈনিক দেশরূপান্তর পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশ বেতারের পঞ্চগড় জেলা সংবাদদাতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি সাংস্কৃতিক ও সামাজিক বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত। তিনি নাট্যদল ভূমিজের উপদেষ্টা। উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সদস্য। জেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য। নজরুল পাঠাগার, ডায়াবেটিক সমিতির জীবন সদস্য। জেলা আইনশৃঙ্খলা ও সার্ভে অ্যান্ড সেটেলমেন্ট কমিটির সদস্য।

পঞ্চগড় জেলার উন্নয়নে তার অবিস্মরণীয় অবদান রয়েছে বলে জানান, সচেতন মহল। চিকিৎসার জন্য তিনি দেশবাসী ও সরকারি সহযোগিতা প্রার্থনা করেছেন। বিভিন্ন সময়ে তাঁকে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট, জেলা পরিষদ, দেশের কয়েকজন শুভানুধ্যায়ী সংব্দাকর্মী, কয়েকজন শুভানুধ্যায়ী বন্ধু ও প্রবাসী ছোটভাইসহ আত্বীয়স্বজনরা সহযোগিতা করেছেন। কিন্তু পরীক্ষা-নিরীক্ষা আর ওষুধ কিনতেই সব শেষ। বর্তমানে চিকিৎসকের পরামর্শে তাঁকে প্রতিদিন দেশি-বিদেশি ছয়শ টাকার ওষুধ খেতে হচ্ছে। যা তার পক্ষে দিনে দিনে অসাধ্য হয়ে উঠছে। তাই চিকিৎসার জন্য তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের বিত্তবানদের সহযোগিতা প্রার্থনা করেছেন।

একজন নিবেদিত প্রাণ গণমাধ্যম কর্মী হিসেবে নীতি নৈতিকতা মেনে সাংবাদিকতা করেছেন শহীদুল ইসলাম শহীদ। সত্যের জন্য তিনি জীবন ভর লড়াই করেছেন। হার মানেন নি তিনি। তাহলে আজ জীবন যুদ্ধে তিনি হেরে যাবেন?