• ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন

সাংবাদিক মাসুদ জিয়াকে প্রানে মেরে ফেলতে সরকারী কারেন্ট চোর আমির ও যুবলীগ নেতা জুয়েল রানার প্রাণনাশের হুমকি


প্রকাশের সময় : মে ২০, ২০২৪, ১২:০০ অপরাহ্ন / ৬১
সাংবাদিক মাসুদ জিয়াকে প্রানে মেরে ফেলতে সরকারী কারেন্ট চোর আমির ও যুবলীগ নেতা জুয়েল রানার প্রাণনাশের হুমকি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ দৈনিক অগ্নিশিখার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক চ্যানেল মুসকান ও বাংলার রাজ-২৪.কম এর প্রকাশক মোঃ মাসুদ রানা জিয়াকে প্রকাশ্যে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এবং মিরপুরের অটোরিকশা ব্যবসায়ী ও বাউনিয়াবাদ এলাকার কারেন্ট চোর ক্ষ্যাত আমির চোরা ও ট্রাফিক সার্জেন্ট পেটানোসহ নানা অভিযোগে অভিযুক্ত পল্লবী থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা, একাধিক মামলার চিহ্নিত আসামি মান্নানসহ তাদের সহযোগীদের বিরুদ্ধে।

রবিবার ১৯ মে রাজধানীর মিরপুর পল্লবী এলাকায় অটোরিক্সা চালক ও পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা চলাকালীন সাংবাদিক মাসুদ জিয়া সংবাদ সংগ্রহ করা কালিন মিরপুরের অটোরিকশা ব্যবসায়ী ও বাউনিয়াবাদ এলাকায় কারেন্ট চোর ক্ষ্যাত আমির চোরা ও ট্রাফিক সার্জেন্ট পেটানোসহ নানা অভিযোগে অভিযুক্ত জুয়েল রানা, একাধিক মামলার চিহ্নিত আসামি মান্নানসহ তাদের সহযোগীরা সাংবাদিক মাসুদ জিয়াকে এ সময় প্রানে মেরে ফেলার হুমকি সহ প্রকাশ্যে লাঞ্ছিত করার মত ঘটনা ঘটায়।

যা সাংবাদিক মাসুদ জিয়ার সাথে থাকা তার সহকর্মীর ক্যামেরায় উঠে আসে এ সকল চিত্র। তাতে দেখা যায় ওই সাংবাদিককে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা অটোরিকশা ব্যবসায়ী আমির, মান্না এবং পাশ থেকে জুয়েল রানা সাংবাদিক মাসুদ জিয়াকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানা যায়, পল্লবী থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানার যোগসাজশে আমির নামের ওই আওয়ামী লীগ নেতা সহ তার সহযোগিরা এমন ঘটনা ঘটিয়েছে। তারা ওই সাংবাদিকের উপর গুরুত্ব হামলা চালানোর জন্য তেড়ে আসে এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ও নিজের প্রাণ বাঁচাতে মিরপুর ছেড়ে চলে যেতে বলে। নয় তো তাকে যে কোন সময় প্রানে মেরে ফেলতে পারে তারা।

এ সময় পাশ থেকে জুয়েল রানাও চিৎকার করে বলে ওই সাংবাদিক তোকে আজকের ভেতর দেইখা নিব নিউজ করছো নিউজ তোর ভিতরে ঢুকামু, দেখস নাই ওই সার্জেন্টেরে কি করসি আমার কি করতে পারছে, তুইও দেইখা নিবি।

এ বিষয়ে বাদী হয়ে ১৯ মে রাতে পল্লবী থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে একটি লিখিতো ডিজি করেছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক মাসুদ জিয়া।