• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:০৬ পূর্বাহ্ন

যশোরের শার্শায় গভীর নলকুপে বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় বিপাকে চাষিরা


প্রকাশের সময় : মার্চ ১, ২০২৩, ৮:৩৫ অপরাহ্ন / ৫১
যশোরের শার্শায় গভীর নলকুপে বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় বিপাকে চাষিরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, শার্শা, যশোরঃ যশোরের শার্শায় গভীর নলকুপে বিদ্যুত সংযোগ না থাকায় ১১০ বিঘা জমিতে সঠিক ভাবে আবাদ করতে পারছেন না কৃষকরা। একই মাঠে বিদ্যুত সংযোগ গভীর নলকুপ টি এক বছর বন্ধ থাকার ফলে একই মাঠে নতুন করে নির্মান হওয়া ডিজেল চালিত গভীর নলকুপে সেচ নিয়ে বেশি পরিমান টাকা খরচ হওয়াই রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে কৃষকদের।ফলে জরুরী ভাবে ঐ নলকুপে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার জোর দাবি জানিয়েছেন কৃষকরা।

সরেজমিনে গিয়ে মশিয়ার, রাজ্জাক,ও ফজলুসহ অনেক কৃষক জানান, শার্শা উপজেলা পুটখালী ইউনিয়নের বালুন্ডা মৌজার বালুন্ডা হাজী ইয়াকুবের ছেলে শফিকুল ইসলাম ১৯৯২ সালে একটি গভীর নলকুপ স্থাপন করেন।যার আওতায় ১১০ বিঘা জমিতে কৃষকরা চাষ করে আসছিলো দীর্ঘদিন।কিন্তু শফিকুলের বিরুদ্ধে সঠিক ভাবো জমিতে পানি না দেওয়া,সেচ বিল দিগুন করা নেওয়াসহ অনেক অভিযোগ ছিলো কৃষকদের। প্রতিবাদ করলেই তাদের সাথে অসৌজন্যমুলক আচারন করতো শফিকুল। এক পর্যায়ে শফিকুল তার গভীর নলকুপটি বন্ধ করে দেয়। সেই সময় কৃষকরা মহা বিপাকে পড়ে যায়।পরিবর্তিতে তারা উপায় না পেয়ে একই মাঠে ৫৮জন সদস্য নিয়ে একটি ডিজেল চালিত গভীর নলকুপ স্থাপন করে।সেই নলকুপে সেচ পেলেও কৃষকদের গুনতে হচ্ছে বেশি পরিমান অর্থ।এখন এমন পরিস্থিতিতে ঐ গভীর নলকুপে বিদ্যুৎ সংযোগ পেলে সঠিক ভাবে আবাদ করার পাশাপাশি খরচ কমবে কৃষকদের।এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিদ্যুৎ সংযোগ চেয়ে উপজেলা নির্বাহি বরাবর আবেদন করেছেন কৃষকরা।যেটি এখনো তদন্তে রয়েছে।

এ ব্যাপারে শফিকুল ইসলাম জানান,তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তা সম্পুর্ন মিথ্যা বরং তারা আমার বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র করে গভীর নলকুপ টা বন্ধ করে দিয়েছে বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহি অফিসার নারায়ন চন্দ্র পালের কাছে জানতে তিনি জানান,এবিষয়ে একটি আবেদন পেয়েছি। তদন্ত প্রক্রিয়াধীন বলে তিনি জানান।