• ঢাকা
  • বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়িতে স্পর্শকাতর স্থানে চাপ দিয়ে কাঠের নকশা ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ


প্রকাশের সময় : মার্চ ১৭, ২০২৪, ১:২৮ অপরাহ্ন / ৩০
মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়িতে স্পর্শকাতর স্থানে চাপ দিয়ে কাঠের নকশা ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে কাঠের নকশা তৈরির এক ব্যবসায়ী আরেক ফার্নিচার ব্যবসায়ীর হাতে খুন হয়েছে। শনিবার (১৬ মার্চ) আনুমানিক সকাল ৯ টার সময় উপজেলার বাঘিয়া বাজার এ ঘটনা ঘটে। নিহত মোস্তফা (৪৫) উপজেলার হাটকান গ্রামের মৃত মফিজউদ্দিন খালাসির ছেলে। মোস্তফার এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মোস্তফা কাঠের নকশা তৈরির কাজ করেন। প্রতিদিনের ন্যায় মোস্তফা দোকান খুলে কাজ শুরু করেন। শনিবার সকালে স্থানীয় পাশের পুরা বাজারের ফার্নিচারের দোকানদার রাজন নামের এক ব্যক্তি কাঠে নকশার কাজ করাতে আসেন। তাৎক্ষণিক তাঁর কাঠে নকশার কাজ করে দিতে বলে রাজন, কিন্তু মোস্তফার হাতে কাজ থাকায় এখনই কাজ করে দিতে পারবেনা জানালে এক পর্যায় বাকবিতণ্ডা এবং হাতাহাতির সৃষ্টি হয়। পরে রাজন মোস্তফার অন্ডকোষে টিপ দিলে ঘটনাস্থলেই মারা যায় মোস্তফা। রাজন মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার নোয়াদ্দা গ্রামের নাসির শিকদারের ছেলে।

হাটকান গ্রামের বাসিন্দা তুহিন বলেন, অত্যান্ত ভদ্র স্বভাবের একজন মানুষ ছিলেন মোস্তফা। তাকে যে বা যাহারা হত্যা করেছে আমরা এলাকাবাসী হত্যাকারীকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইন অনুযায়ী সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি দাবি করছি।

নিহত মোস্তফার শ্বশুর হাজী সাত্তার শেখ বলেন, আমার মেয়ের জামাই শান্ত স্বভাবের একজন মানুষ। তাকে যে হত্যা করেছে আমরা তার ফাঁসি চাই।

মোস্তফার মেয়ে জান্নাত বলেন, আমার বাবাকে যে হত্যা করেছে তার ফাঁসি চাই। রাজনের ফাঁসি চাই।

স্ত্রী সুলতানা বেগম বলেন, আমার স্বামীর হত্যাকারী রাজনের ফাঁসি চাই।

টঙ্গিবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা সোহেব আলী বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে এটা একটি হত্যাকান্ড। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সত্যতা জানা যাবে। নিহতের স্বজনরা মামলা করতে আসলে হত্যা মামলা করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে হত্যাকারী গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।