• ঢাকা
  • সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:১৪ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে ফোন দিলেই সাংবাদিকরা পৌঁছে দিচ্ছে ফ্রি অক্সিজেন সিলিন্ডার


প্রকাশের সময় : জুলাই ১৫, ২০২১, ৪:৩৯ অপরাহ্ন / ১২২
ঝালকাঠিতে ফোন দিলেই সাংবাদিকরা পৌঁছে দিচ্ছে ফ্রি অক্সিজেন সিলিন্ডার

ইমাম বিমান,ঝালকাঠিঃ ঝালকাঠিতে করোনা আকান্ত্র হয়ে শ্বাষ কষ্টে ভুগছেন এমন রোগীর বাসা থেকে ফোন দিলেই বিনা খরচে ফ্রি অক্সিজেন সেবা দিয়ে যাচ্ছে জেলার অন্যতম সাংবাদিক সংগঠন “ ঝালকাঠি মিডিয়া ফোরাম‌‌‌ ” সাংবাদিকরা।মুক্তমনের চিন্তা নিয়ে গড়ে ওঠা জেলার অন্যতম সাংবাদিক সংগঠন “ ঝালকাঠি মিডিয়া ফোরাম‌‌‌ ” এর মাধ্যমে দেশে কোভিড-১৯ তথা করোনা ভাইরাস সংক্রামনের শুরু থেকে জেলায় করোনা যোদ্ধা হিসেবে মাঠ পর্যায় কাজ করে আসছে সংগঠনের সদস্যরা।

দেশের অধিকাংশ জেলায় ভারতীয় ডেল্টাপ্লাস ভেরিয়েন্ট ছড়িয়ে পরলে অন্যান্য জেলার ন্যয় ঝালকাঠিতেও বৃদ্ধি পেতে থাকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। “ঝালকাঠি মিডিয়া ফোরাম‌‌‌” সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে নিজ জেলার মানুষদের পাশে থেকে করোনা আকান্ত্র হয়ে শ্বাষ কষ্টে ভুগছেন এমন মানুষদের বাঁচাতে
সংগঠনের আদলে সংগঠনের সভাপতি সাংবাদিক মোঃ মনির হোসেনের নেতৃত্বে গড়ে ওঠে ঝালকাঠি মিডিয়া ফোরাম সমাজ কল্যাণ সোসাইটি । আর এ সংগঠনের মাধ্যমে সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে করোনা আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে শ্বাষ কষ্টে ভুগছেন এমন রোগীর বাসা থেকে ফোন পেলেই অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে হাজির হচ্ছেন সংগঠনের সদস্যরা। এছাড়াও জেলার সদর উপজেলা থেকে কয়েকটি ইউনিয়নের দূরত্ব বেশি হওয়ায় সংগঠনের সদস্যের মাধ্যমে ইউনিয় পর্যায় প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলে আক্রান্তদের সেবা পৌছে দিতেও ফ্রি অক্সিজেন সেবা চালু করা হয়েছে।

এ বিষয় জেলার অন্যতম সাংবাদিক সংগঠন ঝালকাঠি মিডিয়া ফোরাম’র সভাপতি সাংবাদিক মোঃ মনির হোসেন জানান, অক্সিজেন সিলিন্ডার ক্রয় করতে কর্জ অর্থাৎ ধার-দেনা করে আমি এবং আমার সদস্যদের মাধ্যমে সংগ্রহ করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস আক্রান্ত বা উপসর্গের বেশির ভাগ রুগী শ্বাসকষ্ট সহ নানা সমস্যায় ভুগে থাকেন। বর্তমানে অনেক রুগী হাসপাতালে চিকিৎসা সহ নিজ বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সেবা নিয়ে থাকেন। আবার বেশির ভাগ করোনা রুগীর হঠাৎ করে দেহে অক্সিজেন ঘাটতি দেখা দিয়ে থাকে। কিছু মুহূর্তে বুঝে ওঠার আগেই অক্সিজেন সল্পতার কারণে রুগীর মৃত্যু হয়ে থাকে।এ সকল বিষয় মাথায় রেখে প্রাথমিক ভাবে আমাদের জেলার সদর উপজেলায় করোনা মহামারিতে যেন অক্সিজেনের অভাবে কারো মৃত্যু না হয় সেজন্য আমরা আমাদের সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রমের বিনিময় ফ্রি অক্সিজেন সেবা চালু করেছি।

আর এ সেবায় ঝালকাঠি মিডিয়া ফোরাম এর সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা আব্দুল কাদের খান, উপদেষ্টা মোঃ জামাল হোসেন, সহ-সভাপতি সাংবাদিক রিয়াজ মোরশেদ, সহ-সভাপতি সাংবাদিক মিজানুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আরিফুর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক মোঃ আব্দুল রহমান সুমন, স্বেচ্ছাসেবক রিমা আক্তার আমার সকলের সহযোগিতায় গত ৭ জুলাই এই ফ্রী অক্সিজেন সেবা পরিচালনা শুরু করার পর থেকে কিছু সংখ্যক মানুষ অক্সিজেনের জন্য বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবার মাধ্যমে মনবতার সেবায় এগিয়ে এসেছেন।আমরা এখন পর্যন্ত ১০ জন করোনা আক্রান্ত রোগীদের ফ্রি অক্সিজেন সেবা দিতে পেরেছি। এবং ইউনিয়ন পর্যায় নবগ্রাম ইউনিয়ন থেকে সংগঠনের সদস্য মো: ইমাম হোসেন বিমান ও নবগ্রামের স্থানীয় ব্যবসায়ী মো: হাফিজুল ইসলাম রাজার মাধ্যমে প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলে আক্রান্তদের সেবা পৌছে দিতেও ফ্রি অক্সিজেন সেবা চালু করা হয়েছে।আমাদের এ মানবিক কাজে সহযোগীতার জন্য যারা এগিয়ে এসেছেন আমি আমার সংগঠনের পক্ষ থেকে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ পূর্বক সকলের দীর্ঘায়ু কামনা করছি। একই সাথে এই মহামারী মোকাবিলা করা কারো একার পক্ষে যেহুতু সম্ভব নয় সে ক্ষেত্রে আপনিও পারেন সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে একজন মানুষকে বাঁচাতে এগিয়ে আসতে।