• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জে দ্বিতীয় পর্যায়ে টিসিবি’র পণ্য পেয়ে স্বল্প আয়ের মানুষের মাঝে স্বস্তি, সংখ্যা বাড়ানোর তাগিদ উপকারভোগীদের


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ৭, ২০২২, ৮:৩০ অপরাহ্ন / ৫০
গোপালগঞ্জে দ্বিতীয় পর্যায়ে টিসিবি’র পণ্য পেয়ে স্বল্প আয়ের মানুষের মাঝে স্বস্তি, সংখ্যা বাড়ানোর তাগিদ উপকারভোগীদের

কে এম সাইফুর রহমান,মগোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জে দ্বিতীয় পর্যায়ে টিসিবির পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) বেলা ১১টায় গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার লতিফপুর ইউনিয়নের কাজীর বাজারে দ্বিতীয় পর্যায়ে টিসিবির পণ্য বিক্রয়ের এ কার্যক্রম সরেজমিনে তদারকি করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ রাশেদুর রহমান, সদর উপজেলার নবনিযুক্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মহসিন উদ্দিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ট্যাগ কর্মকর্তা সহ জেলায় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দ।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা, মুকসুদপুর, কাশিয়ানী, টুঙ্গিপাড়া ও কোটালীপাড়া উপজেলায় ৩৫ জন ডিলারের সহযোগিতায় পারিবারিক কার্ডের মাধ্যমে জেলার মোট ৮৯,১০৫টি স্বল্পআয়ের পরিবারের মাঝে সরকারি ভর্তুকি মূল্যে টিসিবি’র এ সকল নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী বিক্রয় করা হবে। জনপ্রতিনিধিদের সুপারিশকৃত পারিবারিক কার্ড সহ একজন ক্রেতা ৫৬০ টাকায় ২ লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল (২২০ টাকা), ২ কেজি প্যাকেটজাত চিনি (১১০ টাকা), ২ কেজি প্যাকেটজাত মুসুরের ডাল (১৩০) এবং ২ কেজি প্যাকেটজাত ছোলা (১০০ টাকা) পাচ্ছেন।

তবে তীব্র গরমে রোজা রেখে দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে টিসিবি পণ্য কিনতে পেরে অনেক উপকারভোগী নারী ও পুরুষদেরকে বেশ স্বস্তি বোধ করতে দেখা গেছে। তবে সরকারের সংশ্লিষ্ট নিকট উপকারভোগীদের সংখ্যা আরও বাড়ানোর জোর দাবি জানান তারা।