• ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৪:২৯ পূর্বাহ্ন

এবার নৌকার মনোনয়ন ঝুকিঁতে রয়েছেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের বিতর্কিত এমপি রতন


প্রকাশের সময় : মার্চ ৩১, ২০২৩, ১২:৪৫ অপরাহ্ন / ৭৬
এবার নৌকার মনোনয়ন ঝুকিঁতে রয়েছেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের বিতর্কিত এমপি রতন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সুনামগঞ্জঃ আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীরা জিতবে দলের এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন দলীয় প্রধান । এমনটির রুপরেখা এবার সামাজিক যোগাযোগে পাওয়া গেছে। আগামী নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন ঝুঁকিতে রয়েছেন বিতর্কিত প্রায় শতাধিক সংসদ সদস্য। আর এই বিতর্কিত এমপিদের মধ্যে সুনামগঞ্জ -১ আসনের এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের নাম ও রয়েছে। এবার বিতর্কিত সংসদ সদস্যদের বদলে নৌকার টিকেট পাবেন পরিচ্ছন্ন ও ত্যাগী নেতা কর্মীরা। আর সে জন্য নিশানা হিসেবে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন একটি মাইল ফলক হিসেবে শান্তিপূর্ণ অনুষ্ঠিত নির্বাচন একটি ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছে । যা সারা দেশে এবং কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা ফলো করেছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দেখেছেন প্রায় ৫০শতাংশ ভোট পড়েছিল। বিপুল ভোটের ব্যবধানে টানা তিন বারের মতো মেয়র হয়ে ইতিহাস গড়েন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। আইভীর বিজয়ে পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তির প্রার্থীর ব্যাপারে ইতিবাচক হয়ে ওঠেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নীতি নির্ধারকরা। একটি সূত্রে জানা গেছে দক্ষ ও পরিক্ষীত প্রার্থীর খোঁজ খবর নিতে ইতিমধ্যে একাধীক টিমকে সারাদেশে প্রতিটি জেলায় দায়িত্ব দিয়েছেন দলীয়প্রধান ও বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। আওয়ামীলীগের নেতারা বলছেন গত সাড়ে তিন বছরের বেশি সময়ে ২০টির মতো উপ-নির্বাচন হয়েছে, তার মধ্যে নতুন প্রার্থী ছিল ১৮জন । আর এই ধারা অব্যহত রাখা হবে আগামী দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন প্রার্থী বাচাইয়ের পর্বে। অন্য দিকে তৃণমুল নেতাদের অভিযোগ রয়েছে তারা বলছেন অনেকেই বসন্তের কুকিলের মত নির্বাচন এলেই নিজ নিজ এলাকায় গিয়ে সাধারণ মানুয়ের কাছে ভোটের জন্য কুহ কুহ করে ডাক শুরু করেন? পরে নির্বাচনে জয়লাভ করে নিজ এলাকা ছেড়ে ঢাকায় অট্রালিকা বানিয়ে এবং বিদেশে পাড়ি দিতে মরিয়া হয়ে পড়েন ? বছরে এক দুইবার নিজ এলাকায় গিয়ে সরকারী পোগ্রাম শেষ করে আবার দিনে দিনে ঢাকায় চলে যান ? । অনেকেই আবার নৌকার মনোনয়ন নিয়ে এমপি হয়ে নিজ এলাকায় পা রাখেন নি? শুধু তাই নয় ধলীয় কার্যালয়ে বছরে একদিন ও পা রাখেননি এমন দৃশ্য রয়েছে অনেক জেলায়। তৃণমূল নেতাদের এড়িয়ে চলাও তাদের কাছেহয়ে পড়ে একটি রোল মডেল। এমন অভিযোগ নিয়ে একাধীকবার বিভিন্ন বৈঠকে খেদোক্তি হয়েছেন দলীয়প্রধানও। এজন্য পরিচ্ছন্ন ইমেজ গড়ে তোলাসহ ভোটারদের মন জয় করার নির্দেশ দিয়েছেন দলীয় প্রধান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । আর এসব কার্যকলাপের কারণে এবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার টিকেট বঞ্চিত হচ্ছেন বিতর্কিত সংসদ সদস্যরা। আর সেই বিতর্কিত তালিকায় সুনামগঞ্জ-৫টি আসনের মধ্যে সুনামগঞ্জ -১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের নামও রয়েছে। তাই এবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পাওয়া মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের জন্য অনিশ্চিতও হতে পারে। জানা যায় দলীয় সাংগঠনিক সম্পাদকের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতারা তাদের সাংগঠনিক সফরে লিখিত প্রতিবেদন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট দিচ্ছেন। এছাড়াও তৃণমূলের নেতাদের সঙ্গে ঢাকায় বসে বৈঠক করে স্থানীয় সংসদ সদস্যদের খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে যেসব সংসদ সদস্য দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী দাঁড় করিয়ে নৌকার বিপক্ষে কাজ করেছেন, সেসব সংসদ সদস্যদের মনোনয়নও অনিশ্চিত হবে এবার। বিতর্কিতদের আর সুযোগ দেওয়া হবে না দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বচ্ছ, পরিচ্ছন্নরাই নৌকার মনোনয়ন পাবেন।

এদিকে সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ড.আবদুর রাজ্জাক ও সভাপতিমন্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান জানান, যাদের ভাবমূর্তি ও কর্মকান্ড ইতিবাচক নয় তাদের আর মনোনয়ন দেয়া হবেনা। যাদের ভূমিকায় দল ও সরকার বিব্রত হয়েছেন তাদের ভবিষ্যতে সংসদে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হবেনা। এমনটির সংবাদ প্রকাশ শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। অন্য দিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায় সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের উপর রয়েছে নানান অভিযোগ। যার কারনে বিতর্কিত তালিকায় সুনামগঞ্জ জেলার ৫টি আসনের সংসদ সদস্যদের মধ্যে একমাত্র রতনই রয়েছেন। এছাড়াও সুনামগঞ্জ তৃণমূল নেতাদের এবং ১আসনের সাধারণ জনগণের মধ্যে বর্তমানে একটি গুঞ্জনও দাবী শুনা যায় । তৃণমূলে সুর উঠেছে এজেলায় সুনামগঞ্জ-১ আসনে পরিবর্তন চায় তৃণমূল মানুষেরা। তাহলে কি এবার নৌকার মনোনয়ন বঞ্চিত হতে চলেছেন বিতর্কিত সুনামগঞ্জ- ১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ? নাকি আবারও কৌশল অবলম্বন করে হাসিল করে নেবেন নৌকার টিকেট ? নাকি নতুন কোন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ আবির্ভাব হতে চলেছেন সুনামগঞ্জ-১ আসনে। এমন প্রশ্ন রীতিমত সাধারণ মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে , কে হবে নৌকার মাঝি রতন না অন্য কেউ ? সময় এবং দলীয়প্রধান শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের তৃণমূল নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষেরা।