• ঢাকা
  • বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৫৫ পূর্বাহ্ন

এবার করোনার ডেলমিক্রন ধরন নিয়ে শঙ্কা


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২৭, ২০২১, ১২:৫২ অপরাহ্ন / ১৫২
এবার করোনার ডেলমিক্রন ধরন নিয়ে শঙ্কা

ঢাকা : ডেলমিক্রন নামে করোনাভাইরাসের আরেকটি ধরন তৈরি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞানীরা। এটি করোনাভাইরাসের আলফা, বিটা কিংবা অন্য ধরনগুলোর মতো একেবারে নতুন কোনো ধরন নয়। মূলত করোনাভাইরাসের বিদ্যমান দুটি ধরন ডেলটা ও ওমিক্রনে’রই সমন্বিত রূপ এটি।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপজুড়ে নতুন করে যে কভিড সুনামি শুরু হয়েছে, তার নেপথ্যে রয়েছে ডেলমিক্রন। এ ব্যাপারে পর্যাপ্ত তথ্য এখনও বিজ্ঞানীদের হাতে আসেনি। এদিকে, ফ্রান্স, ইতালি ও আয়ারল্যান্ডে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ফ্রান্সে গত শনিবার শনাক্তের কোঠা লাখের ঘর পার হয়েছে। ওমিক্রনের কারণে ব্রিটেনের ওয়েলস, স্কটল্যান্ড ও নর্দান আয়ারল্যান্ডে নতুন কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। সারাবিশ্বে ক্রিসমাসের আগে-পরে ওমিক্রন আতঙ্কে বাতিল করা হয়েছে সাড়ে ছয় হাজার ফ্লাইট। বেইজিং জানিয়েছে, গত চার মাসে চীনে সর্বোচ্চসংখ্যক করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। ভারতের আরও দুটি রাজ্য হিমাচল ও মধ্যপ্রদেশে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। করোনা পজিটিভ হয়েছেন বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যান্ড দল বিটিএসের তিন সদস্য।

ডেলটা ও ওমিক্রন ধরনের সমন্বিত রূপ ডেলমিক্রনকে উচ্চ সংক্রমণ ক্ষমতার ধরন বলে মনে করা হচ্ছে। চলতি বছরের এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকে জুনের মাঝামাঝি পর্যন্ত করোনার ডেলটা ধরনের আধিপত্য দেখা গেছে। বিশ্বজুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জন্য এ ধরনই দায়ী বলে মনে করা হয়। আর ওমিক্রন ধরন নিয়ে ধারণা করা হচ্ছে, এর উপসর্গ মৃদু। এর সংক্রমণ ক্ষমতা অনেক বেশি হলেও মারাত্মক কোনো উপসর্গ দেখা দেয় না এবং হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন কম হয়। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, বিদ্যমান টিকা নিয়ে এবং প্রাকৃতিকভাবে অর্জিত রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা দিয়ে ওমিক্রন ধরনকে ঠেকানো যায় না।

ধারণা করা হচ্ছে, ডেলমিক্রনের উপসর্গও মারাত্মক। ডেলমিক্রনের সম্ভাব্য সাধারণ কিছু উপসর্গ হলো- উচ্চ তাপমাত্রা, ক্রমাগত কাশি, স্বাদ ও গন্ধ না পাওয়া কিংবা স্বাদ-গন্ধে পরিবর্তন আসা, মাথাব্যথা, সর্দি ও গলাব্যথা। তবে ডেলমিক্রন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আরও অনেক গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে। মডার্নার প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা পল বুর্টন মনে করেন, কোনো ব্যক্তি একই সময়ে ডেলটা ও ওমিক্রন ধরনে আক্রান্ত হলে নতুন এই শক্তিশালী ধরনের আবির্ভাব হতে পারে।

ফ্রান্সের জনস্বাস্থ্য দপ্তরের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, শনিবার দেশটিতে এক লাখ চার হাজার ৬১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ওমিক্রনের দ্রুত বিস্তার নিয়ে উদ্বেগে রয়েছেন দেশটির সরকারি ও বেসরকারি

কর্মকর্তারা। কভিড বিধিনিষেধ আরোপ নিয়ে আজ দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাক্রোন তার সরকারের গুরুত্বপূর্ণ সদস্যদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠক করবেন।

প্রতিদিনই করোনায় সংক্রমণের হার ভয়াবহভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে যুক্তরাজ্যে। সংক্রমণ রোধে যুক্তরাজ্যের স্কটল্যান্ড, ওয়েলস ও নর্দান আয়ারল্যান্ডে নতুন বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। নৈশক্লাব বন্ধ ঘোষণাসহ সামাজিক দূরত্বের নিয়মগুলো ফের চালু হয়েছে। এ ছাড়া প্রয়োজনে যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধা করবেন না বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বিশ্বখ্যাত কে-পপ ব্যান্ড বিটিএসের তিন সদস্য আরএম, সুগা ও জিনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।