• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১১ অপরাহ্ন

এনপিএস’এর খোলা চিঠি


প্রকাশের সময় : জুলাই ১২, ২০২২, ১০:২১ অপরাহ্ন / ৭০
এনপিএস’এর খোলা চিঠি

সম্মানিত সদস্যগণ শুভাকাঙ্ক্ষী ও শুভানুধ্যায়ী এবং প্রিয় দেশবাসী,আসসালামুয়ালাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ। আপনাদের জ্ঞাতার্থে সবিনয়ের সাথে জানানো যাচ্ছে যে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত ও কপিরাইট আইনে নিবন্ধিত গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংস্থা “ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি (এনপিএস)” একটি অরাজনৈতিক ও অলাভজনক সংস্থা।

সংস্থাটি প্রতিষ্ঠা লগ্ন হতে প্রায় ১৫ বছর যাবত বাংলাদেশ সরকার ও রাষ্ট্রের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়,আইন ও প্রশাসনিক দপ্তর/সংস্থাকে অবগত ও অনুগত হয়ে সুশাসন ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় সুনামের সাথে দেশব্যাপী কার্যক্রম পরিচালনা এবং রাষ্ট্র ও সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমে অংশগ্রহণ ও সহায়তা করিয়া আসছে।

বিভিন্ন আবেদনকৃত ঘটনার তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ এবং সরজমিনে পর্যবেক্ষণ কার্যক্রম করে থাকে।পাশাপাশি দুস্থ অসহায় নির্যাতিত ও সুবিধাবঞ্চিতদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় মধ্যস্থতা,সালিশ কার্যক্রম,আইনগত সহায়তা এবং আইনি লড়াই চালিয়ে যায়। এ পর্যন্ত অসংখ্য মামলার নিষ্পত্তি ও সমাধান দিয়েছে এবং আরো চলমান আছে।

তাছাড়াও দুইটা বঞ্চিতদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় অগণিত মানববন্ধন সাংবাদিক সম্মেলন সভা সেমিনার হয়েছে। উপরোক্ত কার্যক্রম গুলো প্রয়োজনে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়াতে প্রকাশ করা হয়। গঠনতন্ত্র মোতাবেক সাংগঠনিক মূলধারার কার্যক্রম ও পরিচালনা বিদ্যমান রহিয়াছে। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা চেয়ারম্যান অন্যান্য পর্ষদের সাথে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে ঐক্যমতের ভিত্তিতে নিয়ন্ত্রিত হয়।

এখানে বিতর্কিত ব্যক্তিদের অবস্থান করার সুযোগ নেই, যাদের নিজেদের অপকর্মের বিষয়টি প্রকাশ পেয়ে যায় তখন তারা সংস্থা স্বেচ্ছায় ছেড়ে যান নয়তো তাদেরকে ঝেড়ে দেওয়া হয়। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। কেউ বিচলিত বা হতাশ হবার কিছুই নেই।

সংস্থা অসংখ্যা শিক্ষিত এবং অভিজ্ঞ পর্ষদে নিয়ে কার্যকরী পরিষদ গঠিত। তবে এটাই সত্যি সংস্থা ছাড় দেয় ছেড়ে দিবে না। কার্যক্রমকে আরো ত্বরান্বিত,পরিধির ব্যাপকতা ও গণমানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য সকল সদস্যদের প্রতি বিশেষভাবে অনুরোধ রইল।

(সকলের নেক হায়াত দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করছি)

(মোঃ মাহবুবুল ইসলাম) চেয়ারম্যান:
ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি (এনপিএস)।