• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৫ Jun ২০২৪, ০২:৩৫ অপরাহ্ন

হবিগঞ্জের বাহুবলে ট্রাক্টর চাপায় শিশু নিহতের ঘটনায় মামলা হলেও ধরা পড়েনি কোন আসামি


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৯, ২০২৩, ৪:০৭ অপরাহ্ন / ৫৭
হবিগঞ্জের বাহুবলে ট্রাক্টর চাপায় শিশু নিহতের ঘটনায় মামলা হলেও ধরা পড়েনি কোন আসামি

নিজস্ব প্রতিবেদক,হবিগঞ্জঃ হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের বাহুবলে মাটি বোঝাই ট্রাক্টরের চাকায় চাপা পড়ে মাদ্রাসা ছাত্র নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা হলেও গ্রেফতার হয়নি কোন আসামি। পূর্ব বিরোধের জের ধরে শিশু সামিউন আহমদ (৯) কে ট্রাক্টর চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে মর্মে থানায় মামলা দায়ের করেন নিহত সামিউনের পিতা আব্দুল আহাদ। গত ১০ জানুয়ারি বেলা একটার দিকে উপজেলার হরিপাশা গ্রামে ট্রাক্টর চাপায় শিশু সামিউন নিহত হয়। সে আমিনা চৌধুরী হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র ছিল।

এ ঘটনার দুইদিন পর ১২ জানুয়ারী নিহত শিশুর পিতা হত্যার অভিযোগ এনে হরিপাশা গ্রামের দরছ মিয়ার পুত্র জিলন মিয়া, ট্রাক্টর চালক হরিতলা গ্রামের আবিদ আলীর পুত্র ইব্রাহিম আলী ও ট্রাক্টর মালিক উজিরপুর গ্রামের মৃত ফয়েজ উল্লার ছেলে নুর উদ্দিনকে আসামি করে বাহুবল মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। (বাহুবল থানার মামলা নং-৪ তাং ০৪/৪, তাং ১২/০১/২০২৩)।

মামলার বাদি এজাহারে উল্লেখ করেন, আসামি জিলন মিয়ার সাথে পানি নিষ্কাশনের বিষয় নিয়ে শিশুর পিতা আব্দুল আহাদের বিরোধ চলছে। এরই মধ্যে ১০ জানুয়ারি জিলন মিয়া জমি থেকে ট্রাক্টরযোগে বাড়িতে মাটি নেওয়ার ফলে তাদের চলাচলের রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এর প্রতিবাদ করলে জিলন মিয়ার সাথে আব্দুল আহাদের তর্কবিতর্কের ঘটনা ঘটে। এর পরপরই জোরপূর্বক ট্রাক্টর চালিয়ে যাওয়ার সময় শিশু মাদ্রাসা শিক্ষার্থী সামিউনকে চাপা দিলে সে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।

এ ঘটনার খবর পেয়ে বাহুবল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ রকিবুল ইসলাম খানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি এক্সভেটর ও দুটি ট্রাক্টর জব্দ করে। পরে বাহুবল-নবীগঞ্জ সার্কেল এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আবুল খয়েরও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় মিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান শামীম আহমদ সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।