• ঢাকা
  • বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:২৯ অপরাহ্ন

স্বাধীনতা দিবসে একজন শিক্ষার্থীর পোষাক নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ২, ২০২৩, ৫:২৭ অপরাহ্ন / ৬১
স্বাধীনতা দিবসে একজন শিক্ষার্থীর পোষাক নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, নড়াইলঃ নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পোষাকে একজন শিক্ষার্থীর সজ্জিত হওয়ায় তার প্রতিষ্ঠানকে শোকজ করা হয়েছে।

সুত্রে জানা যায়, নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আজগর আলী স্বাক্ষরিত নোটিশে শিক্ষার্থীর পোষাক পরা নিয়ে ওই শিক্ষার্থীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান “দি লিটল সেন্টল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল” কর্তৃক প্রদর্শিত ডিসপ্লেটি মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ নয় এবং এ সংক্রান্তে জনমনে বিরুপ প্রতিক্রিয়াসহ উপজেলা প্রশাসনের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে মর্মে পরিলক্ষিত হয়।

দেশের স্বাধীনতা দিবসে একজন ক্ষুদে শিক্ষার্থীর পোষাক পরার স্বাধীনতা কেড়ে নেওয়া হয়েছে বলে দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

বাংলাদেশের তিন বারের প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার পোষাকের সজ্জিত সাজে পোষাক পরার অপরাধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই শিক্ষার্থীর প্রতিষ্ঠানকে শোকজ করেছেন। স্বাধীনতা দিবসে নতুন করে স্বাধীনতা হরণ করাকে কেন্দ্র করে আলোচনা সমালোচনায় ভাসছে নড়াইলের লোহাগড়া।

সুত্র মনে করে, জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকার কে প্রশ্নবিদ্ধ করতে পোষাক নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টির সাথে অসুস্থ রাজনীতির জড়িত থাকতে পারে বলে অনেকে মনে করেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রীর পোষাকের সাজে পোষাক পরা কোনো অপরাধ না।

খোজ নিয়ে জানা গিয়েছে, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে লোহাগড়া উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন পরিষদ স্বাধীনতা দিবস পালন করেনি, এমনকি ওই দিনে ইউনিয়ন পরিষদের তালাও খোলা হয়নি।

প্রশ্ন উঠেছে ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ও সদস্যদের স্বাধীনতা দিবস পালন করায় নিষেধাজ্ঞা আছে কি না। যনি নিষেধাজ্ঞা না থাকে তাহলে দিবস পালন করা হয়নি কেনো।

জাতীয় দিবস পালন করা হয়নি ইউনিয়ন পরিষদগুলোকে শোকজ করা হবে না কেনো জানতে চায়।