• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ Jul ২০২৪, ০৯:৪৭ অপরাহ্ন

সৌদি প্রবাসী রুবেলের লাশের বদলে এলো অন্যজনের লাশ


প্রকাশের সময় : জুলাই ২৮, ২০২৩, ১২:০৮ অপরাহ্ন / ৪৭
সৌদি প্রবাসী রুবেলের লাশের বদলে এলো অন্যজনের লাশ

জিজুল ইসলাম, যশোরঃ যশোরের শার্শার ছেলে, সৌদি প্রবাসী রুবেলের লাশ বদল হয়েছে। রুবেলের লাশ বদলে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার জবডল গ্রামের মৃত তৈয়ব আলীর ছেলে মোজাম্মেল হোসেনের লাশ পাঠানো হয়েছে রুবেলের মা বাবার কাছে। এনিয়ে তৈরী হয়েছে বিভ্রান্ত্রী। যশোরের শার্শা উপজেলা বাগুড়ী গ্রামের রুবেল হোসেন এক বছর একমাস আগে সৌদিতে যান। হঠাৎ গত ৩ জুলাই বাংলাদেশ সময় বেলা ১২টার দিকে তিনি মারা যান।

বাংলাদেশ প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ২৬ জুলাই বুধবার দুপুর ২টার দিকে শার্শা উপজেলার বাগুড়ী গ্রামে রুবেল হোসেনের লাশ পাঠানো হয়। তবে রুবেলের মৃতদেহ তার মা বাবা কেউ শনাক্ত করতে পারেননি। বাধ্য হয়ে মৃতদেহটি বুধবার রাত ৮ টার সময় বাগআঁচড়া সাধারণ কবরস্থানে দাফন করা হয়।

নিহত রুবেল হোসেন শার্শা উপজেলা ৭নং কায়বা ইউনিয়নের বাগুড়ী দক্ষিণপাড়া গ্রামের মোঃ ফারুক হোসেনের ছেলে। মাত্র এক বছর আগে সে সৌদি আরবে যায়। সে ওখানে একটি মাদ্রাসায় পরিচ্ছন্ন কর্মী হিসেবে কাজ করতেন। কিন্তু কুরবানী ঈদের কারনে দুই মাস ওই মাদ্রাসা টি ছুটি হয়ে যায়।

ছুটির কারণে মাদ্রাসায় কাজ না থাকায় রুবেল হোসেনের একজন পরিচিত ব‍্যক্তির সাথে অন্য জায়গায় সেফটি ট্যাংক পরিষ্কার করার কাজে যায়। সেফটি ট্যাংকে পড়ে রুবেল হোসেন মারা যান।

অন‍্যদিকে বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যান মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে মৃত রুবেল হোসেনের ঠিকানায় পাঠানো হয়েছিলো কিশোরগঞ্জের সৌদি আরব প্রবাসী মোজাম্মেল হকের লাশ।
বৃহস্পতিবার বিকালে যশোর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবরাউল হাছান মজুমদারের অনুমতিক্রমে মৃতদেহটি কবর থেকে উত্তোলন করে মৃতের স্বজনদের হাতে তুলে দেয়া হয়।
স্হানীয় চেয়ারম্যান মোঃ আলতাফ হোসেনের মাধ্যমে লাশটি হস্তান্তর করা হয়।

এদিকে রুবেল হোসেনের মা ময়না খাতুন বলেন, যে লাশটি আমাদের বাড়িতে পাঠানো হয়েছিলো সেটি আমার ছেলে নয়। অন্যজনের লাশ। তারা তাদের ছেলের লাশটি দ্রুত দেশে আনার দাবী করেছেন।