• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০২:০১ পূর্বাহ্ন

সিলেট এয়ারপোর্ট এলাকায় ট্রাকে তুলে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি রাজধানী থেকে গ্রেফতার


প্রকাশের সময় : মে ১০, ২০২৩, ৫:০৮ অপরাহ্ন / ৬০
সিলেট এয়ারপোর্ট এলাকায় ট্রাকে তুলে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি রাজধানী থেকে গ্রেফতার

এম রাসেল সরকারঃ সিলেটের এয়ারপোর্ট এলাকার চাঞ্চল্যকর ১০ বছরের শিশুকন্যাকে ট্রাকে তুলে ধর্ষণ মামলার একমাত্র প্রধান আসামি ধর্ষক রওশনালী বেপারী ও ধর্ষণের সময় ব্যবহৃত ট্রাকসহ রাজধানীর শ্যামপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০। গতকাল রাজধানী ঢাকার শ্যামপুর থানাধীন ইকোপার্ক এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে সিলেট জেলার এয়ারপোর্ট থানার ১০ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণ মামলার একমাত্র পলাতক আসামি রওশনালী বেপারী (৪৭) কে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার কাছ ধর্ষণের সময় ব্যবহৃত ট্রাক জব্দ করা হয়।

র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামি পেশায় একজন ট্রাক চালক। সে প্রায় ট্রাক চালিয়ে ভিকটিমের বাড়ীর পাশ দিয়ে যাতায়াত করত। যাতায়াতকালে হঠাৎ একদিন ভিকটিমকে রাস্তা দিয়ে একা আসতে দেখে সে ভিকটিমকে ডেকে এনে কিছু চকলেট কিনে দেয় এবং ভিকটিমকে টার্গেট করে। এরকম বেশ কয়েকদিন ভিকটিমকে চকলেট, বিস্কুট ইত্যাদি কিনে দিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে তার বিশ্বাস অর্জন করে এবং ভিকটিমের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে থাকে।

পরবর্তীতে গত ২/৮/২০২২ আনুমানিক সকাল ৬ টার সময় ভিকটিম (১০) প্রকৃতির টানে তার বাড়ীর পিছনে টয়লেটে যায়। একই সময় রওশনালী ভিকটিমের বাড়ীর পাশে ওত পেতে থাকাবস্থায় ভিকটিমকে দেখতে পেয়ে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ডাক দেয়। অতঃপর ভিকটিম তার কাছে এলে সে ভিকটিমকে কৌশলে তার ট্রাকের কেবিনে উঠিয়ে ট্রাক চালিয়ে সিলেট জেলার এয়ারপোর্ট থানাধীন ধোপাগুলা এলাকার নানাবুরার পাথরের সাইটের নির্জন রাস্তার পার্শ্বে ট্রাক থামায়। সেখানে গিয়ে ভিকটিমকে বিভিন্ন প্রকার ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে ট্রাকের কেবিনের ভিতরে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

এতে ভিকটিম ডাক-চিৎকার করলে রওশনালী ভিকটিমের মুখ চেপে ধরে ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক তাকে ধর্ষণ করে এবং এতে ভিকটিম অজ্ঞান হয়ে পরে। অতঃপর ভিকটিমের জ্ঞান ফিরলে ধর্ষক রওশনালী তাকে বিস্কুট ও অন্যান্য জিনিষপত্র দিয়ে ভিকটিমকে ট্রাক থেকে নামিয়ে দিয়ে ট্রাক নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় বলে জানা যায়।