• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন

সাভারে সাংবাদিকের ওপর হামলা : পৌর আ. লীগ নেতা গ্রেপ্তার


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ১৬, ২০২৩, ১২:৪৪ অপরাহ্ন / ২৭
সাভারে সাংবাদিকের ওপর হামলা : পৌর আ. লীগ নেতা গ্রেপ্তার

মোঃ রাসেল সরকার,ঢাকাঃ ঢাকার সাভারে সংবাদ প্রকাশের জেরে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ৭১ টিভির সাভার প্রতিনিধি আশরাফ সিজেলের ওপর হামলা ও অপহরণ চেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সাভার পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য মহসীন বাবুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার সকাল ১০টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা।

তিনি বলেন, আমিনবাজার ইউনিয়ন পরিষদের ঝুঁকিপূর্ণ ভবন নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় আমিনবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রকিব আহম্মেদ ও সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজিবের নির্দেশে মহসীন বাবুর নেতৃত্বে অজ্ঞাতনামা ৮-১০ জন ব্যক্তি গতকাল দুপুর ২টার দিকে সাংবাদিক আশরাফ সিজেলকে মারধর ও অপহরণের চেষ্টা করেন। ওই সময় মহসীন বাবু পিস্তল ঠেকিয়ে হুমকিও দেয় বলে রাতে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন আশরাফ সিজেল। লিখিত অভিযোগের পর রাত ৯টার দিকে মহসিনকে আটক করা হয়। অভিযোগটি মামলা হিসেবে আমলে নেওয়া হয়েছে। ওই মামলায় মহসিন বাবুকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজ আদালতে পাঠানো হবে।

দীপক চন্দ্র আরও বলেন, আমরা পিস্তলটি উদ্ধারের চেষ্টা করছি।

সাংবাদিক আশরাফ সিজেলের লিখিত অভিযোগে বলা হয়, আমিন বাজার ইউনিয়ন পরিষদ অফিস ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় পরও সতর্ক হয়নি চেয়ারম্যান, ‘খাস জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণ’ শীর্ষক শিরোনামে ৭১ টেলিভিশনে একটি সংবাদ প্রচারিত হলে ক্ষুব্ধ হয়ে সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব ও আমিন বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রকিব আহম্মেদের নির্দেশে মহসীন বাবু, রওশনসহ অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জন গত ১৫ জানুয়ারিদুপুরে সাভারের পৌর এলাকার ভাটপাড়া মহল্লায় বাসার সামনে থেকে আশরাফ সিজেলের ওপর হামলা চালায়।

এ বিষয়ে আশরাফ সিজেল বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে আমিনবাজার ইউনিয়ন পরিষদের ভবনটি ঝুকিপূর্ণ হওয়ায় স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইউপি চেয়ারম্যানকে অন্যত্র পরিষদ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বলা হলেও অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান রকিব আহম্মেদ ঝুঁকি উপেক্ষা করে ভবনটিতেই দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে খাস জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ রয়েছে। পরে এ বিষয়ে আজ ৭১ টেলিভিশনে একটি সংবাদ প্রকাশ হলে ক্ষুব্ধ হয়ে সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান ও আমিনবাজার ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে সন্ত্রাসীরা আমার ওপর হামলা ও অপহরণের চেষ্টা করে। এ সময় মহসীন বাবু একটি পিস্তল বের করে সেটির বাট দিয়েও আমাকে আঘাত করে। তখন ৯৯৯-এ ফোন করলে পুলিশ আমাকে উদ্ধার করে। পরে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি বলেন আশরাফ সিজেল।

তবে অভিযোগের বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজিব ও আমিন বাজার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রকিব আহম্মেদ।

সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজিব বলেন, আমি তো এ বিষয়ে কিছুই জানি না, এখন শুনি আমার নামে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। আমি চাই যদি ওই সাংবাদিকের ওপর কেউ হামলা করে থাকে, তাকে যেন আইনের আওতায় আনা হয়। একইসঙ্গে সে যে আমাকে জড়িয়েও মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে, সেটিও যেন তদন্ত করে অভিযোগ মিথ্যা হলে মিথ্যা অভিযোগের জন্যও যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

তিনি বলেন, আমার সঙ্গে তার (সাংবাদিকের) অত্যন্ত ভালো সম্পর্ক। কিন্তু আমাকে জড়িয়ে একটি মিথ্যা অভিযোগ করেছে শুনে আমি মর্মাহত হয়েছি। কেন সে এই অভিযোগ করলেন, কারও দ্বারা প্রভাবিত হয়ে এই অভিযোগ করলেন কি না আপনারা খতিয়ে দেখেন।

আমিন বাজার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রকিব আহম্মেদ বলেন, যে রিপোর্টটি করা হয়েছে, সেটি তো আমার জন্য ইতিবাচক। আমরাও চাই ভবনটি সংস্কার করা হোক। তাছাড়া তার সঙ্গে তো আমার সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো। সে কেন আমার নামে অভিযোগ আনছে সেটি আমার বোধগম্য নয়।

জানতে চাইলে স্থানীয় সাংবাদিক রওশন বলেন, আমি আর ৭১ টিভির ক্যামেরাম্যান উজ্জ্বল দাঁড়িয়ে কথা বলছিলাম, আমি মোটরসাইকেলেই বসে ছিলাম। এর মধ্যে হঠাৎ দেখি আশরাফ সিজেল দৌড় দিয়েছে। এর বাইরে তো আর কিছুই হয়নি, এখন শুনি আমার নামেও মামলা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাভার পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম মানিক মোল্লা বলেন, মহসিন বাবু পৌর আওয়ামী লীগের এক জন সদস্য। সে আমাদের একজন ভালো কর্মী। এখন যদি সে অপরাধ করে থাকে তার দায় সংগঠন নেবে না। যদি অভিযোগ হয়ে থাকে সে বিষয়ে পুলিশই ব্যবস্থা নেবে।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়েমুল হুদা বলেন, আশরাফ সিজেল বিকেল ৫টা নাগাদ আমাদের হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। তার পায়ের হাঁটুর ওপরের অংশে (থাই) হালকা আঘাতের চিহ্ন রয়েছে, এ ছাড়া তার শরীরে আর তেমন কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।