• ঢাকা
  • সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৩৩ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরায় সরকারি পানি নিষ্কাশনের কালভার্টের মুখে মাটি ভরাট করে দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ


প্রকাশের সময় : জুন ২১, ২০২২, ১১:০২ অপরাহ্ন / ৫৮
সাতক্ষীরায় সরকারি পানি নিষ্কাশনের কালভার্টের মুখে মাটি ভরাট করে দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ

আবদুল্লাহ আল মামুন, সাতক্ষীরাঃ সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে সরকারি পানি নিষ্কাশনের কালভার্টের মুখে মাটি ভরাট করে দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের মূড়াগাছা গ্রামে। এবিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে এলাকাবাসী।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের পিরোজপুর কালভার্ট দিয়ে মাদকাটি, মুড়াগাছা, উচ্ছেপাড়া ও পিরোজপুর গ্রামের পানি নিষ্কাশন হয়। কিন্তু গত এক সপ্তাহ আগে মুড়াগাছা গ্রামের মৃত হাজের আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান ওই কালভার্টের মুখে মাটি দিয়ে ভরাট করে দোকান ঘর নির্মাণ করছে। মাটি ভরাট করার সময় স্থানীয় ইউপি সদস্য ও এলাকাবাসী বাঁধা প্রদান করেন তাকে। কিন্তু কারো কথায় কর্নপাত না করে সে দোকান ঘর নির্মাণ কাজ অব্যাহত রেখেছে। কালভার্টটি বন্ধ করে সরকারি জায়গা দখল নিয়ে দোকান ঘর নির্মাণ করলে ১ হাজার বিঘা ফসলি জমি, পুকুর, বসতভিটা পানির তলে নিমজ্জিত থাকবে। যার ফলে কয়েকটি গ্রামের মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়বে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হবে এলাকার কৃষক।

পানি নিষ্কাশনের সরকারি জমি দখল করে দোকান ঘর নির্মাণের করার বিষয়ে জানতে চাইলে দখলকারী হাবিবুর রহমান বলেন, চেয়ারম্যান সাহেবের অনুমতি নিয়ে তিনি দোকান ঘর নির্মাণ করছি। আমি পানি নিষ্কাশনের পথ রেখে মাটি ভরাট করেছি। চেয়ারম্যান বললে সরকারি জমি দখল করতে আর কোন অনুমতি লাগেনা বলে তিনি জানান।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ধলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী শওকত হোসেন বলেন, আমি তাকে পানি নিষ্কাশনের জায়গায় মাটি ভরাট দিয়ে দোকান ঘর নির্মাণের অনুমতি দেয়নি। এর আগে ওইখানে হাবিবুরের টল দোকান ছিল। এজন্য মাটি ভরাট দিয়ে দোকান করা তার জন্য সঠিক আছে বলে জানান তিনি।

কালিগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি রোকনুজ্জামান বলেন, এবিষয়ে লিখিত অভিযোগ এখনো তিনি পাননি। তবে বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।