• ঢাকা
  • সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন

সাতক্ষীরায় কোর্টের আদেশ অমান্য করছে তালার ২ ঘের ব্যবসায়ী


প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ১০, ২০২৪, ৬:৪৬ অপরাহ্ন / ৪৯
সাতক্ষীরায় কোর্টের আদেশ অমান্য করছে তালার ২ ঘের ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাতক্ষীরাঃ সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার খলিষখালি ইউনিয়নের খাস জমি সরকারের কাছ থেকে ডিসিআর ও আদালতে মামলা চালিয়ে আদালতে আদেশ দিলেও সেটাও মানছেন না দুই ঘের মালিক। জমির উপরে যেতে পারছেন না দুটি অসহায় পরিবার।

এ ব্যাপারে সরেজমিন অনুসন্ধানে গিয়ে জানা যায়, সাতক্ষীরা জেলা তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার খলিষখালি ইউনিয়নের খলিষখালি মৌজার যার দাগ নম্বর ১০৮১ ও খতিয়ান নাম্বার জমির পরিমাণ ৫, ৪৬ অতএব ১৬ বিঘার একটু বেশি সরকারি খতিয়ানের বিলিহীন জমি সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের এখান থেকে ডিসিআর কাটেন মোশারফ ও কালাম সেই অনুযায়ী তারা জমিতে যাওয়ার চেষ্টা করলে ঘের মালিক জাকির (পিতা আফসার) সাতক্ষীরা এডিসের এখানে একটি মামলা করেন সেটা তদন্ত শেষে সাতক্ষীরা কোট মোশারফ ও কালামকে জমিতে যাওয়ার আদেশ দেন সহকারী কমিশনার ভূমি তালা ও উপজেলার বরাবর ১০/ তারিখ শনিবার সকালে সেই আদেশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যান মোশারফ ও কালাম তখনই স্থানীয় ইউপি মেম্বার আসাদুল ঘটনাস্থলে এগিয়ে পাটকেলঘাটা থানাকে অবগত করলেই ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন পাটকেলঘাটা থানার সেকেন্ড অফিসার জাহিদ হোসেন ও খলিষখালি ক্যাম্পের আয়সি মিজানুর রহমান ও টুআইসি সহ পুলিশ টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে যাতে কোন মারামারি হাতাহাতি না হয় তার জন্য কাজটি বন্ধ করে দেন এবং থানায় মীমাংসা করার জন্য ডাকেন।

এ ব্যাপারে মোশারফু ও কালাম জানান সরকারি জমি আমরা ডিসি আর নিয়েছি, যখন আমরা এই জমির পারে যেতে চাই তখন দিলিপ ও জাকির বিপন্নভাবে বাধা দিতে থাকে তারা এডিসি এখানে মামলাও করে তখন আমি জাকিরকে বলি যে আমার নামে মামলা করলে তখন জাকির আমাদেরকে বলে দেখেন ভাই আমরা মামলা করেছি যদি মামলায় আপনি জিতে যান অবশ্যই আমরা চলে আসবে কোন ঝামেলা করবো না সেই অনুযায়ী আমরা মামলা চালিয়ে আজ দুইদিন রাই পেয়েছি তাই জমির পারে এসেছি এরা একের পর এক মিথ্যা ভাবে হয়রানি করার পাঁয়তারা করে যাচ্ছে তারা কোর্টের আদেশ ও অমান্য করছে উক্ত ঘটনাটির তীব্র ও নিন্দা জানাচ্ছি এ বিষয়ে পুলিশ প্রশাসন ও উর্দ্ধতন কর্মকর্তা ‌ হস্তক্ষেপ ও সুদৃষ্টি কামনা করছি
এ ব্যাপারে ঘের মালিক জাকির ও দিলীপের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান আমরা দখলের আছি এবং তাদের কাছে কাগজ পাতি দেখতে চাইলে তারা দুজন বিভিন্ন তালবাহানা করে

এ ব্যাপারে তালা উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি আরাফাত হোসেন কাছে জানার চেষ্টা করলেই তার ব্যবহৃত সরকারি ফোন নাম্বারে ফোন দিলে ফোন রিসিভ না করায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে তালা উপজেলার সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ সাজ্জাদ হোসেন কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন জমিটা যারা সরকারের কাছ থেকে নিয়েছে তারাই পাবে এবং যদি কেই আইন অমান্য করার চেষ্টা করে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে