• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন

সরকারি জমি-পুকুর দখল করে বিক্রির অভিযোগ রাজশাহীর এক আইনজীবীর বিরুদ্ধে


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২২, ২০২৩, ৯:২০ অপরাহ্ন / ১৭
সরকারি জমি-পুকুর দখল করে বিক্রির অভিযোগ রাজশাহীর এক আইনজীবীর বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদক,চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের সিদনা গ্রামের সরকারি জমি দখল ও ভরাট করার অভিযোগ উঠেছে এক রাজশাহীর আইনজীবীর বিরুদ্ধে। সরকারি জমি ও পুকুর দখল করে ভরাট করে বিক্রির অভিযোগ করছেন স্থানীয়রা। সিদনা মৌজার প্রায় ৪৫ বিঘা জমির মধ্যে ইতোমধ্যে ৫/৬টি পুকুর ভরাট করে বিক্রিও করেছেন এক রাজশাহীর নবাগত আইনজীবী।

স্থানীয়দের অভিযোগ,সরকারি জমি ও পুকুর দীর্ঘদিন ধরে কৃষিকাজে ব্যবহার করে স্থানীয় কৃষক ও গ্রামবাসী। তবে গত কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন কায়দায় জালিয়াতি করে এসব দখল করে নিচ্ছেন তিনি। একজনের জমি কেনার দলিলপত্র দেখালেও বাকি জায়গাগুলোও দখলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। বাধা দিতে গেলে স্থানীয়দের নামে নানারকম ভয়ভীতি,হয়রানি ও মামলা দায়ের করেছেন আইনজীবী

স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরেই এই এলাকার কয়েক হাজার কৃষক সিদনা গ্রামের সরকারি পুকুরে সাহায্যের মধ্য দিয়ে ধানের বীজতলা তৈরি করেন। এছাড়াও পুকুরের আশেপাশের জায়গায় ধান মাড়াই করেন কয়েক হাজার কৃষক। এতে সেখানে ধান মাড়াইয়ের কাজ হয় কয়েক হাজার বিঘা জমির ধান।

স্থানীয় কৃষক তরিকুল ইসলাম বলেন, বছরের পর বছর থেকে আমরা এই মাঠের ধান মাড়াই ও বীজতলা তৈরি করি। সরকারি জমি ও পুকুর হিসেবে আমরা এতোদিন ধরে ব্যবহার করে আসছি,কিন্তু হঠাৎ করে কয়েক বছর থেকে জমিগুলো নিজের বলে দাবি করে আশে পাশে পুকুর গুলো ভরাট করে বিক্রি করে দিচ্ছে ও বাধা দিতে গেলে আমাদের উপর জুলুম করতে থাকে ও মামলা দিতে থাকে।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল ওদুদ জানান, জমিগুলো নানভাবে জালিয়াতি করা হয়েছে,তার পর পরেই জমিগুলো দখল করছে। এতে নানরকম ভোগান্তিতে পড়েছে আমরা। সরকারি জমি সরকার উদ্বার করে স্থানীয় কৃষকদের ব্যবহারের উপযোগী করে রাখা হোক।

কারন এভাবে একদিকে যেমন সরকারি সম্পত্তি হাতছাড়া হচ্ছে, তেমনি অন্যদিকে সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

স্থানীয় এলাকাবাসীর দাবি সঠিক তদন্তের মাধ্যমে এটি দ্রুত উদঘাটন করা হোক এতে কৃষি উন্নয়নের যেন ব্যাঘাত না ঘটে সেদিকে সরকারের দৃষ্টি কামনা করেন দিনমজুরি সেখানকার কৃষকরা।