• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:২৯ অপরাহ্ন

রাজশাহীর বাঘায় কমিউনিটি রেডিও বড়ালের হলরুমে ‘ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ এর আয়োজনে কর্মশালা অনুষ্ঠিত


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৭, ২০২২, ২:৪৫ অপরাহ্ন / ১৯
রাজশাহীর বাঘায় কমিউনিটি রেডিও বড়ালের হলরুমে ‘ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ এর আয়োজনে কর্মশালা অনুষ্ঠিত

চারঘাট (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ “আত্মসম্মানে বলীয়ান ব্যক্তি কখনো দরিদ্র হতে পারে না”-স্লোগানকে সামনে রেখে বাঘায় ‘ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ’ এর আয়োজনে ‘প্রত্যাশা, প্রতিশ্রুতি ও কার্যক্রম’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (১৪ ডিসেম্বর, ২০২২) সকাল ১০ টায় বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভায় অবস্থিত কমিউনিটি রেডিও বড়ালের হলরুমে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়। রাজশাহী জেলা ‘ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ’ এর কর্মশালা বিষয়ক সম্পাদক নাসিম রাজ-এর উপস্থাপনায় আয়োজিত কর্মশালা ফ্যাসিলিটেট করেন রাজশাহী হতে আগত VCAW ফ্যাসিলিটেটর ও ‘ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ’ এর রাজশাহী জেলার সহ-সমন্বয়ক সেলিম রেজা, রাজশাহী সিটি ইউনিট-এর দপ্তর সম্পাদক ও ‘ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ’ এর ফ্যাসিলিটেটর ফারজানা ইয়াসমিন সুকুমন এবং বাঘা উপজেলা ‘ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ’ এর এডভাইজার মিনহাজুল ইসলাম। এছাড়া সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে কর্মশালায় মূলবান বক্তব্য রাখেন কমিউনিটি রেডিও বড়ালের সহকারি স্টেশন ম্যানেজার জনাব মাসুদ রানা। কর্মশালায় ছাত্র-ছাত্রীদেরকে পড়ালেখার পাশাপাশি অবসর সময়ে সমাজ গঠনের বিভিন্ন কাজে যোগদান করে সবার জন্য একটি সমৃদ্ধ ও মর্যাদাপূর্ণ ভবিষ্যৎ সৃষ্টি করার প্রত্যাশায় উজ্জীবীত করা হয়। সকলের মধ্যে সামাজিক দায়বদ্ধতা বোধ ও আত্মনির্ভরশীলতা অর্জনের প্রত্যাশা সৃষ্টি এবং সকলকে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হওয়ার শিক্ষা পরিবেশনের মাধ্যমে শেষ হয় কর্মশালাটি। কর্মশালা শেষে সন্তুষ্ট মনোভাব ব্যক্ত করেন উপস্থিত সকল ইয়ুথ। পরিবার-সমাজ-পরিবেশ বিশেষ করে নিজেদের পরিবর্তনের মাধ্যমে দেশের প্রতি সৃষ্ট দায় পরিশোধের ব্যাপারেও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ও নতুন প্রেরণায় উজ্জীবীত হয় তারা। আয়োজিত কর্মশালায় ২৫ জন ইয়ুথ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের জন্য সম্ভাবনাময় ভবিষ্যতে বিশ্বাসী একটি সামাজিক আন্দোলন ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাব্রতী সংস্থা দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর অনুপ্রেরণায় সৃষ্ট এই সংগঠনটি ক্ষুধাধামুক্ত আত্মনির্ভরশীল বাংলাদেশ সৃষ্টির প্রত্যাশার ভিত্তিতে ছাত্র-ছাত্রীদের নেতৃত্বেই পরিচালিত হয়ে থাকে। এ সংস্থার প্রতিটি সদস্য নিজের উন্নত ভবিষ্যৎ নিজে গড়তে এবং অন্যকে সহায়তা করতে সদা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ১৯৯৫ সালে যাত্রা শুরুর পর থেকে বাংলাদেশে অন্যতম একটি স্বেচ্ছাব্রতী আন্দোলনে রূপ নিয়েছে ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার-বাংলাদেশ।