• ঢাকা
  • শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন

রাজশাহীর চারঘাটে বৃষ্টির জন্য গ্রামবাসীর নামাজ-মোনাজাত


প্রকাশের সময় : জুলাই ১৬, ২০২২, ৪:০৭ অপরাহ্ন / ৬৩
রাজশাহীর চারঘাটে বৃষ্টির জন্য গ্রামবাসীর নামাজ-মোনাজাত

চারঘাট প্রতিনিধিঃ আষাঢ় পেরিয়ে শ্রাবণ মাস শুরু হয়েছে। চলছে বর্ষাকাল। কিন্তু বৃষ্টিতো হচ্ছেই না, বরং উল্টো প্রতিদিন বেড়েই চলেছে তাপমাত্রা। তীব্র দাবদাহে মানুষের জীবন নাভিশ্বাস উঠেছে। শুধু মানুষ নয়, একে ফোঁটা বৃষ্টির আশায় প্রহর গুনছে পশুপাখিরাও।

এই অবস্থায় বৃষ্টির জন্য বিশেষ নামাজ (ইস্তিসকার নামাজ) আদায় করেছেন রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার মুসল্লিরা।
উপজেলার সরদহ ইউপি চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান মধুর আয়োজনে বৃষ্টির জন্য নামাজ পড়েছেন খোর্দগোবিন্দপুর, পলাশপুর, মুংলি, পাটিয়াকান্দী, ঝিকরা, চকরপাড়া ও ধর্মহাটা গ্রামের জনসাধারণ।

শনিবার সকালে খোর্দগোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে প্রায় ৭ শতাধিক গ্রামবাসী অংশ নেন। নামাজে ইমামতি করেন খোর্দগোবিন্দপুর দারুল হুদা সালাফিয়া মাদ্রাসার সুপারিন্টেন্ডেন্ট রাহেনুজ্জামান বিদ্যুৎ। নামাজের পর খুৎবা পাঠ শেষে দোয়াও পরিচালনা করেন তিনি।

জানা গেছে, চারঘাট রাজশাহীর কৃষি নির্ভর উপজেলা। আষাঢ় মাস শেষে শ্রাবণ মাস শুরু হলেও নেই বৃষ্টির দেখা। পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতের অভাবে আমনের আবাদ নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় দিন পার করছেন কৃষকরা। বৃষ্টির অভাবে বর্ষাকালেও আবাদি জমি ফেটে চৌচির হয়ে গেছে। খাল-বিল ও নদ-নদী পানিশূন্য হয়ে গেছে। এজন্য খরা ও অনাবৃষ্টি থেকে রক্ষা পেতে নামাজ আদায় করেছেন এলাকাবাসী। নামাজ শেষে অব্যাহত অনাবৃষ্টি থেকে মুক্তির জন্য ও আল্লাহর রহমত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

নামাজ শেষে ইমাম রাহেনুজ্জামান বিদ্যুৎ বলেন, মানুষ, জীবজন্তু, পশুপাখি অনাবৃষ্টি ও অতিখরায় ভুগছে। তাই এ অবস্থা থেকে উত্তোরণের জন্য বৃষ্টির আশায় আমরা মহান আল্লাহপাকের দরবারে মাফ চেয়ে কান্নাকাটি করে নামাজ আদায় করেছি। বৃষ্টির জন্য প্রতিদিন সবাই ইস্তেগপার করার জন্য আহ্বান করেন।

সরদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান মধু বলেন, শ্রাবণ মাসেও বৃষ্টির দেখা নেই। প্রচণ্ড খরায় মাঠের ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। গরমে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে এখানকার জনজীবন। প্রাণিকুলসহ মানবজাতি এমন দুর্ভোগ থেকে মুক্তি পেতে ও মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনসহ আনুগত্য প্রকাশে এই নামাজ আদায় করেছেন।