• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন

রাজধানী ঢাকার বাইরে থেকে দূরপাল্লার গাড়ি কম আসছে


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৯, ২০২২, ১০:১৪ অপরাহ্ন / ৩৭
রাজধানী ঢাকার বাইরে থেকে দূরপাল্লার গাড়ি কম আসছে

মোঃ রাসেল সরকার,ঢাকাঃ শনিবার বিএনপির সমাবেশ সামনে রেখে ঢাকার প্রবেশপথ গুলোতে কড়া পুলিশি পাহারার ভেতর আজ শুক্রবার সকাল থেকে গাবতলী ও সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল এলাকায় দূরপাল্লার গাড়ি কম আসতে দেখা গেছে। যাত্রীর অভাবে ঢাকা থেকে অন্য জেলাগুলোর উদ্দেশেও গাড়ি কম ছেড়েছে।

এই ২ বাস টার্মিনালে দেখা যায়, ঢাকার বাইরে থেকে আসা দূরপাল্লার গাড়িগুলোর ৪০-৪৫ শতাংশ আসন ফাঁকা ছিল। এর ভেতর কিছু কিছু গাড়িতে পুলিশকে তল্লাশি চালাতে দেখা গেছে। এ ছাড়া ছুটির দিনের সকালে ঢাকার রাজপথে গণপরিবহনের সংখ্যা ছিল খুবই অল্প।

এদিন সকালে ঢাকা থেকে চুয়াডাঙ্গাগামী এসডি ডিলাক্স পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার আব্দুল করিম বলেন, ‘১০ টায় গাড়ি ছাড়ার কথা। কিন্ত যাত্রী না থাকায় এখনো বাস ছাড়তে পারি নাই। এখন বাধ্য হয়ে ৫০% সিট খালি রেখেই গাড়ি ছেড়ে দিচ্ছি। কিছু করার নাই, গতকালও লস গুনতে হয়েছে। তিনি আরও বলেন, অন্য সময় ৭-৮টা গাড়ি যায়। গতকাল মাত্র ২টা গেছে। আজ একটা ছাড়তেই বেগ পেতে হচ্ছে।

এই কাউন্টারের পাশেই বসে থাকা ৭০ বছর বয়সী যাত্রী জসীম উদ্দিন বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গাগামী পূর্বাশা পরিবহনের বাসে টিকেট করেছি। ১১ টায় ছাড়ার কথা। এখন কাউন্টার থেকে বলছে ১২টার আগে বাস ছাড়তে পারবে না।’

ঢাকা-যশোর রুটে চলাচলকারী জননী পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার হৃদয় হোসেন জানান, স্বাভাবিক সময়ে ঢাকার বাইরে থেকে তাদের পরিবহনের ৪ টা বাস ঢোকে। আজ ঢুকেছে একটি। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে জোনাকি পরিবহনের কাউন্টারে কর্তব্যরত আলাউদ্দিন বলেন, আমাদের গাড়ি ঢাকা থেকে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট যায়। যাত্রী না থাকায় আজ সকাল থেকে কোনো গাড়ি ছাড়তে পারিনি। একইভাবে নাঙ্গলকোট থেকে কোনো গাড়ি ঢাকায় আসেনি।

ঢাকা-লাকসাম রুটে তিশা পরিবহনের মো. শান্ত বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের মদনপুরে চেক পোস্ট এড়িয়ে আমাদের একটি মাত্র গাড়ি লাকসাম থেকে ঢাকায় আসতে পারছে। চেক পোস্ট থাকায় আর কোনো গাড়ি আসতে পারেনি।তিনি আরও বলেন, ‘ঢাকা থেকে ১০-১২ জন যাত্রী নিয়ে এখন পর্যন্ত ৬টি গাড়ি লাকসাম গিয়েছে।’

এদিকে সায়েদাবাদ এলাকায় রাজধানীর লোকাল বাসগুলোতেও যাত্রী সংকট দেখা গেছে। যাত্রাবাড়ী থেকে মিরপুরগামী ট্রান্সসিলভা পরিবহনের চালক বলেন, ‘অন্য শুক্রবারের তুলনায় আজকে যাত্রী খুবই কম। সায়েদাবাদে প্রায় ২০ মিনিট বসে আছি, যাত্রী পাচ্ছি না।

যাত্রাবাড়ী থেকে টঙ্গীগামী তুরাগ পরিবহনের চালক মো. মঈন বলেন, ‘সাধারণত শুক্রবারে যাত্রীর সংখ্যা কম থাকে। তবে আজকে সেই সংখ্যা আরও কম।’

এছাড়া প্রবেশপথ বাদেও ঢাকার সড়কগুলোতে মোটরসাইকেল থামিয়ে কিছু আরোহীকে তল্লাশি করতে দেখা গেছে।