• ঢাকা
  • শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:৩৪ পূর্বাহ্ন

রাজধানীর সায়েদাবাদ-যাত্রাবাড়ীতে মাওয়ামুখী যাত্রীর চাপ


প্রকাশের সময় : জুলাই ১২, ২০২২, ১:৫৩ পূর্বাহ্ন / ৭৩
রাজধানীর সায়েদাবাদ-যাত্রাবাড়ীতে মাওয়ামুখী যাত্রীর চাপ

মোঃ রাসেল সরকারঃ ঈদুল আযহার পরের দিনেও রাজধানীর সায়েদাবাদ-যাত্রাবাড়ী থেকে দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকার যাত্রী নিয়ে অনেক বাস ছেড়ে যেতে দেখা গেছে। এ ছাড়াও মতিঝিলের নটরডেম কলেজ সংলগ্ন এলাকা থেকে সিলেট, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের বাস ছেড়ে যেতে দেখা যায়। এসব এলাকা থেকে নোয়াখালী, ফেনী, চাঁদপুর, ভৈরব ও কুমিল্লার দিকেও যাত্রী নিয়ে বাস ছেড়ে গেছে। তবে যাত্রীর অধিক চাপ রয়েছে বরিশাল, খুলনা, শরীয়তপুর, ফরিদপুর ও মাদারীপুরগামী মাওয়ামুখী পরিবহনের।

সোমবার (১১ জুলাই) সরেজমিনে দেখা গেছে, ঈদের আগে সুবিধা মতো টিকিট না পাওয়ায় অনেকেই ঈদের পরদিন বাড়ি যাওয়ার জন্য পরিবারসহ সায়েদাবাদ ও যাত্রাবাড়ী বাসস্ট্যান্ডে আসেন। সকালের দিকে যাত্রী কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘরমুখো যাত্রীও বাড়ে। টার্মিনাল গুলোতে দেখা যায়, নির্ধারিত স্থানের টিকিট সংগ্রহ করে বাসের জন্য অপেক্ষা করছেন অনেকেই। তবে আজ বাসের টিকিটের চাহিদা বেশি থাকলেও অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের কোনো অভিযোগ করেননি কেউই। যাত্রীর চাপ বেশি থাকায় দূরপাল্লার বাসগুলোও দ্রুত ছেড়ে যায়। যাত্রী বোঝাই হলেই গন্তব্যের উদ্দেশ্য ছেড়ে যাচ্ছিল বাসগুলো।

কথা হয় সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালের হানিফ এন্টারপ্রাইজ ও শ্যামলী পরিবহনের কাউন্টারের দায়িত্বপ্রাপ্তদের সঙ্গে। তারা জানান, ঈদের আগে যারা যেতে পারেননি তারা আজ বাড়ি যেতে টিকিটের জন্য আসছেন। অনেকেই ঈদের আগে ব্যস্ত থাকায় তারা এখন বাড়ি যাচ্ছেন। যাত্রীর চাপ থাকায় প্রতি ঘণ্টায় তারা গাড়ি ছাড়ছেন বলে জানান।

রাজধানীর শাহজাহানপুরে থাকেন ইকবাল করিম। ঈদের আগে বাড়ি যাওয়ার জন্য টিকিট না পাওয়ায় আজ যাচ্ছেন। বিকেল তিনটার দিকে এসে বরিশালের টিকিট সংগ্রহ করেন। ইকবাল বলেন, চেয়েছিলাম ঈদের আগে বাড়ি যাবো, কিন্তু সুবিধামতো টিকিট না পাওয়ায় সেটি সম্ভব হয়নি। সে কারণে একদিন পর যাচ্ছি। তবে ছুটি বেশি না থাকায় চারদিন পর আবার ঢাকায় ফিরবেন বলে জানান।

সার্বিক পরিবহনের কাউন্টারের ম্যানেজার বলেন, সকাল থেকেই মোটামুটি যাত্রী ছিল। কিন্তু বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীর চাপও বাড়তে থাকে। তবে আগামীকাল (মঙ্গলবার) থেকে এ ভিড় কমতে পারে বলে জানান তিনি।

ইলিশ পরিবহনের এক কর্মচারী জানান, আজ সারাদিন যাত্রীর চাপ বেশ ভালোই ছিল। আজ যে ঈদের পরদিন এটা মনেই হয়নি। বরং অন্যান্য সময় নিয়মিত যেমন যাত্রী থাকে আজও তেমন ছিল।

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ যেতে যাত্রাবাড়ী বাসস্ট্যান্ডে আসেন রিনা। পদ্মা পরিবহনের টিকিট নিতে লাইনে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, পদ্মা সেতু হওয়ার পরে এই রুটে যাত্রী অনেক বেড়েছে। টিকিটের জন্য এখন দীর্ঘসময় লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়।