• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০১:০১ অপরাহ্ন

রাজধানীর সায়দাবাদ ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড়


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ২১, ২০২৩, ৫:৩৮ অপরাহ্ন / ৪৯
রাজধানীর সায়দাবাদ ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড়

এম রাসেল সরকারঃ ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও সিলেটগামী বাসের সবচেয় বড় জায়গা হলো সায়দাবাদ বাস টার্মিনাল। এখান থেকে হানিফ, শ্যামলী, হিমাচল, রয়েল কোচ, ইউনিক, সোহাগ, গ্রিন লাইন ও টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসসহ বেশকিছু পরিবহন যাতায়াত করে। পবিত্র ঈদুল ফিরত উদযাপনের জন্য প্রিয়জনদের সঙ্গে দেখা এবং একসঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে ঢাকা ছাড়ছে সব শ্রেণি পেশার মানুষ। যে যেভাবে পারছেন, প্রিয়জনের টানে ছুট চলছে।

বরাবরের মতো এবারও বাড়তি ভাড়া আদায় করছে পরিবহনের লোকজন। তারপরও বাসগুলোর টিকিট পেতে বেশ হিমশিম খাচ্ছেন তারা। বৃহস্পতিবার (২০ এপ্রিল) রাত থেকেই আজ ভোর পর্যন্ত রাজধানীর সায়দাবাদ বাস টার্মিনালে এমন চিত্র দেখা গেছে।

দেখা যায়, বাস টার্মিনাল এলাকা ছাড়িয়ে বাসের চাপ রয়েছে পুরো রাস্তাজুড়ে। হাজার হাজার মানুষ বাসস্ট্যান্ড এলাকাসহ বিভিন্ন কাউন্টারে ভিড় করছেন। কেউ বাসের টিকিটের জন্য দৌড়ের উপর আছেন, আবার কেউ অপেক্ষায় আছেন কাঙ্ক্ষিত বাসটি কখন আসবে।

বিভিন্ন বাসের কাউন্টার মাস্টাররা বলছেন, আজ রাতে ব্যাপক চাপ রয়েছে যাত্রীদের। গতকালও এমন চাপ ছিল না।

যশোর যাত্রী আজগর আলী বলেন, আগে যেতাম আজ ৫৫০ টাকায় এখন যেতে হচ্ছে ৭৫০ টাকা। নড়াইলের যাত্রীন আলম বলেন, ৫০০ টাকার ভাড়া ৭০০ টাকা নিয়েছে। সায়দাবাদে ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড়ের মধ্যে বাসের লোকজন ভাড়া নিয়ে যেন ডাকাতি শুরু করেছে। অনেক সময় বলে টিকিট নেই বাধ্য হয়ে টিকিট নিলাম।

বরিশালের যাত্রী আবদুল গনি মিয়া বলেন, ৬০০ টাকার ভাড়া বাধ্য হয়ে দিতে হল ৮৫০ টাকা।

বাসের কাউন্টার ম্যানেজাররা বলছেন, গতকাল থেকে আজ সারা রাত যাত্রীদের ব্যাপক চাপ রয়েছে। প্রতিটি গাড়ি পরিপূর্ণ হয়ে ঢাকা ছাড়ছে। ঈদযাত্রায় আজকে সবচেয়ে বেশি যাত্রীর চাপ রয়েছে। আমরা কোনো অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছি না যাত্রীরা ভুল বুঝছে। নিধারিত ভাড়া নেওয়া হচ্ছে।