• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৭:১৫ অপরাহ্ন

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেল এসএসসি পরীক্ষার্থীর


প্রকাশের সময় : মে ১০, ২০২৩, ৯:১৪ অপরাহ্ন / ৫৪
রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেল এসএসসি পরীক্ষার্থীর

এম রাসেল সরকারঃ রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর দনিয়া কলেজের সামনে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাজুল ইসলাম (১৮) নামে এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। সে এ বছর চলতি বছর কে কে স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিল। বুধবার (১০ মে) সন্ধ্যা ৭টার দিকে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মৃত ঘোষণা করেন।

তাজুল ইসলামকে উদ্ধার করে নিয়ে আসা প্রতিবেশী মারুক বলেন, দনিয়া কলেজের সামনে দুর্বৃত্তরা তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে পাশের একটি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে আমরা তাকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহত তাজুল ইসলামের দুলাভাই আশিকুর রহমান বলেন, তাজুল ইসলাম একে স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিল। আজও তার একটি পরীক্ষা ছিল। কিছুক্ষণ আগে খবর পেলাম তাজুল গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসা হয়েছে। এসে দেখি আমার শ্যালক আর বেঁচে নেই।

তিনি বলেন, আমার শ্বশুর মোশারফ হোসেন কাতার প্রবাসী। তবে কী কারণে বা কারা তাকে হত্যা করেছে এ বিষয়ে জানতে পারিনি। তারা কদমতলী থানার কুদারবাজার এলাকার ৮৩/১ বাসায় থাকত। তারা এক ভাই ও এক বোন। সে ছিল সবার ছোট। এ ঘটনায় মো. সায়েম নামে আরও এক শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়ে ঢামেক হাসপাতালে এসেছে। সেও একই স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে।

আহত সায়েমকে নিয়ে আসা মুশফিক বলেন, আমি ও আরেক বন্ধু কোচিং শেষে ফেরার পথে দেখি সায়েম রক্তাক্ত অবস্থায় দনিয়া কলেজের পাশে পড়ে আছে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেলের জরুরি বিভাগে নিয়ে এসেছি। বর্তমানে জরুরি বিভাগের ৯৮ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসা চলছে। মুশফিক জানায়, সেখানে অনেকেই মারামারি করছিল। তাদের মধ্যে কায়েস নামে একজনকে চিনতে পেরেছি। তবে কী কারণে এই ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে কিছু বলতে পারছি না। আমি আদর্শ স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছি আর সায়েম এ কে স্কুল থেকে পরীক্ষা দিচ্ছে। হাসপাতালে এসে শুনি এই ঘটনায় তাজুল ইসলাম নামে আরও একজন মারা গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজুল আলম বলেন, তাজুল ইসলাম নামে একজন নিহত ও সায়েম নামের একজন আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন বলে জানতে পেরেছি। ঘটনাস্থল ও ঢাকা মেডিকেলে পুলিশের টিম পাঠিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, কী কারণে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো জানতে পারিনি। তদন্ত চলছে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।