• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ Jun ২০২৪, ০৫:৩৪ অপরাহ্ন

রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানার পুলিশ হেফাজতে রিমান্ডে আসামির মৃত্যু


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ৫, ২০২১, ১:৩৮ অপরাহ্ন / ১৮৪
রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানার পুলিশ হেফাজতে রিমান্ডে আসামির মৃত্যু

বিশেষ প্রতিনিধিঃ রাজধানীর উত্তরায় পুলিশ হেফাজতে মোঃ লিটন (৪৫) নামে এক মাদক মামলার রিমান্ডে থাকা আসামীর মৃত্যু হয়েছে। তবে, পুলিশ বলছে, ওই আসামী নিজেই আত্মহত্যা করেছেন। বিমান বন্দর জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) তাপস কুমার দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ডিএমপির উত্তরা পূর্ব থানার হাজত থেকে সোমবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে ওই আসামিকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে চিকিৎসার জন্য তাকে টঙ্গীস্হ শহীদ আহসান উল্লাহ্ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। জানা যায়, নিহত আসামি মোঃ লিটন (৪৫) বগুড়া জেলার কাহালু উপজেলার পাল্লাপাড়া গ্রামের সোলেমান প্রামাণিকের ছেলে।

এ বিষয়ে বিমান বন্দর জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) তাপস কুমার দাস বলেন, সোমবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে উত্তরা পূর্ব থানার ভেতরে হাজতে লিটন কম্বল নিয়ে ঘুমিয়ে ছিল। পরবর্তীতে ভেন্টিলেটরের রডের সঙ্গে কম্বল গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। যা আমরা সিসি ক্যামেরা চেক করে দেখতে পেয়েছি। এখানে কারও কোন অবহেলা পাওয়া যায়নি।

পুলিশের এ কর্মকর্তা আরও বলেন, এ ঘটনায় নিহত লিটনের মরদেহ টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে রাখা হয়েছে। সেখানে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে মরদেহের সুরতাল রিপোর্ট করা হবে।

এ ঘটনায় কোন আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে এডিসি তাপস দাস বলেন, একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে। তাঁর মরদেহ সেখানেই ময়নাতদন্ত করা হবে। মাদক ব্যবসায়ী মো লিটনকে দুই দিনের পুলিশ রিমান্ডে আনা হয়েছিল। সোমবার রাত ছিল রিমান্ডের প্রথম দিন।

এবিষয়ে উত্তরা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) সাইফুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, একাধিক মাদক মামলার আসামী মোঃ লিটনকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য উত্তরা পূর্ব থানায় রিমান্ডে আনা হয়।

এ ঘটনায় বিমান বন্দর জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) তাপস কুমার দাসকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটির বাকী দুইজন হলেন- উত্তরা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) সাইফুল ইসলাম ও উওরা পূর্ব জোনের (এসি) পেট্রোল কাজী নূরে আলম । তারা আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে এবিষয়ে প্রতিবেদন প্রদান করিবেন। এঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে আজ সকালে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে তিনি জানান। ময়নাতদন্ত শেষে নিহতের মরদেহ তার গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হবে।