• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন

যশোরের বেনাপোলে শিশু শিক্ষার্থীকে পেটানোর দ্বায়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১০, ২০২৩, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন / ২২০
যশোরের বেনাপোলে শিশু শিক্ষার্থীকে পেটানোর দ্বায়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বেনাপোল, যশোরঃ যশোরের বেনাপোলে ৫ বছর বয়সী নার্সারী পড়ুয়া শিশু শিক্ষার্থীকে বেদম প্রহারের দায়ে শিক্ষক আমিনুল ইসলাম (৪০) এর নামে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন, ভূক্তভোগী শিশুর পিতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবু।

বুধবার সকালে তিনি বেনাপোল পোর্ট থানায় আল-ফালাহ ইসলামীক স্কুলে কর্মরত শিক্ষকের নামে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

বেনাপোল পোর্ট থানার এস আই শংকর অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সভাপতি, প্রধান শিক্ষক ও অভিযুক্ত শিক্ষককে আজই থানায় হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগের বর্ণনায় পিতা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মঙ্গলবার সকালে তার কন্যা সামিরা আক্তার স্কুলে যায়। স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পর তার শরীরে লাঠি দিয়ে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পান। প্রথমে শিশুটি স্বাভাবিক থাকলেও দুপুরে ঘুমের সময় প্রচন্ড জ্বর আসে। এ সময় আতঙ্কিত অবস্থায় ও ভুল বকতে থাকে। শিক্ষকের প্রহারে বর্তমানে শিশুটি আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে মানসিক অসুস্থতায় ভুগছে। শিক্ষক কর্তৃক কোমলমতি শিশুর বেদম প্রহারের বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানালে সন্তোষজনক জবাব না পাওয়ায় তিনি সুষ্ঠু বিচারের জন্য থানায় অভিযোগ করেছেন বলে জানান। একটি বেসরকারি প্রি ক্যাডেট স্কুলের শিক্ষকের এহেন আচরণে ক্ষুদ্ধ অভিভাবক মহল। ইতি পূর্বেও অভিযুক্ত শিক্ষক অন্য শিক্ষার্থীদেরও শারিরিক নির্যাতন করেছেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাকে জানিয়েছেন। আগামীকাল আল-ফালাহ ইসলামীক স্কলারস স্কুলের বিষয়টি খতিয়ে দেখবো। এছাড়া তিনি জানান, বেনাপোল আলফালাহ্ ইসলামী স্কলারস স্কুলটির এই প্রথম নাম শুনলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আমরা ব্যবস্থা নেব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র পাল জানান, বেনাপোলে শিক্ষার্থীর প্রহারের একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্তের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তবে এ বিষয়ে অভিযুক্ত ঐ শিক্ষকের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।