• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০৮ অপরাহ্ন

মেট্রো রেলের সব বগি এখন ঢাকায়


প্রকাশের সময় : মার্চ ৩১, ২০২৩, ৩:৩৫ অপরাহ্ন / ৪২
মেট্রো রেলের সব বগি এখন ঢাকায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাঃ মেট্রো রেলের ৬ নম্বর লাইনে যুক্ত হলো শেষ ট্রেনসেট। শুক্রবার মেট্রো রেলের সর্বশেষ ২৪ নম্বর ট্রেনসেটটি দিয়াবাড়ী ডিপোতে এসে পৌঁছে। তুরাগ নদের তীরে নবনির্মিত জেটিতে রাখা আছে। সেখান থেকে এই ট্রেনসেটটি ডিপোতে নেওয়া হচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে দেশের প্রথম মেট্রো রেলের বহরে চলাচলকারী সব ট্রেন যুক্ত হচ্ছে। প্রতিটি ট্রেনে দুই পাশে দুটি ইঞ্জিন কোচ থাকবে। তাই ওই দুই কোচে যাত্রীর ধারণক্ষমতা মাঝের চার কোচের তুলনায় কম। প্রতিটি ট্রেনে ইঞ্জিনসহ মোট কোচ থাকবে ছয়টি। সেই হিসেবে ১৪৪টি কোচের সব গুলোই এখন ঢাকায়।

মেট্রো রেল বাস্তবায়ন করছে সরকারি প্রতিষ্ঠান ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কম্পানি লিমিটেড (ডিমটিসিএল)। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক (বিদ্যুৎ সিগন্যাল টেলিকমিউনিকেশন এবং ট্র্যাক) মো. জাকারিয়া বলেন, পরিকল্পনা মতে মার্চের মধ্যে শেষ ট্রেন সেটটি পৌঁছানোর কথা ছিল। সেটি সফল হয়েছে। এখন মেট্রো রেলের সব কোচ ঢাকার ডিপোতে পৌঁছে গেল। প্রকল্পের নথির তথ্য বলছে, প্রকল্পের আট নম্বরের প্যাকেজের অধীন রেল কোচ ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ করা হচ্ছে। এই প্যাকেজের বাস্তব কাজ শুরু হয় ২০১৭ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর। ২৪তম ট্রেন সেট জাপানের কোবে সমুদ্রবন্দর থেকে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি জাহাজযোগে বাংলাদেশের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই প্যাকেজের বাস্তব অগ্রগতি ৮৫.৯২ শতাংশ।

মেট্রো রেল সূত্র জানায়, দেশের প্রথম নগর ট্রেনে ২৪ সেট ট্রেন চলাচল করবে। তবে প্রাথমিক ভাবে ১০ সেট ট্রেন দিয়ে উত্তরার দিয়াবাড়ী ডিপো থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১.৭৩ কিলোমিটার পথে মেট্রো রেলের চলাচল শুরু হয়েছে। পুরো পথ চালু হলে নিয়মিত ২০ সেট ট্রেন চলবে। আর চার সেট ট্রেন বিকল্প হিসেবে সব সময় প্রস্তুত থাকবে। এদিকে মেট্রো রেলের সব স্টেশনের দরজা খুলল শুক্রবার থেকে উত্তরা দক্ষিণ ও শেওড়াপাড়া স্টেশন খুলে দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে বাড়তে যাচ্ছে ট্রেন চলাচলের সময়। এত দিন সকালে চার ঘণ্টা ট্রেন চললেও আগামী ৫ এপ্রিল থেকে ছয় ঘণ্টা চলবে মেট্রো রেল। নতুন সময় অনুযায়ী সকাল ৮টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত ট্রেন চলবে। প্রথম দিন থেকে গত বুধবার পর্যন্ত মেট্রো রেল চালিয়ে আয় হয়েছে ছয় কোটি ২০ লাখ টাকা। এই সময়ে যাত্রী পরিবহন করা হয়েছে ১০ লাখ ৭৭ হাজার। খরচ হয়েছে সাত কোটি ৩৩ লাখ টাকার মতো। খরচের বেশির ভাগ গেছে বিদ্যুৎ খাতে। সঙ্গে রক্ষণাবেক্ষণ, বেতন ও অন্যান্য খরচ রয়েছে। ৩৩ হাজার ৪৭৩ কোটি টাকা খরচ করে রাজধানীর উত্তরা থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ২১.২৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের প্রথম মেট্রো রেলের নির্মাণকাজ এখনো চলমান রয়েছে। প্রকল্পটি ২০১২ সালে হাতে নেয় সরকার। গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর এই পথের প্রথমাংশ উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১.৭৩ কিলোমিটার চালু করা হয়। দ্বিতীয় অংশ আগারগাঁও থেকে মতিঝিল ২০২৩ সালের শেষ দিকে চালুর পরিকল্পনা রয়েছে। আর মতিঝিল থেকে কমলাপুর পর্যন্ত বর্ধিতাংশ ২০২৫ সালে চালুর লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।