• ঢাকা
  • বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন

মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে জেলেদের মাঝে বকনা বাছুর বিতরণ


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২৮, ২০২৩, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন / ১০
মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে জেলেদের মাঝে বকনা বাছুর বিতরণ

মতিউর রহমান রিয়াদঃ মুন্সিগঞ্জ লৌহজং উপজেলা পরিষদ চত্বরে বুধবার লৌহজং উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর ও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে ১৬ জন জেলেকে বকনা বাছুর বিতরণ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন এর সভাপত্বিতে ও সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. ফরিদুল ইসলাম এর স্বাগত বক্তব্য ও সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লৌহজং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন তপন।এসময় তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এদেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের কাজ করছেন তিনি। সারা বাংলাদেশে জেলেদের ভাগ্য উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার বকনা বাছুর বিতরণের কর্মসূচি উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার মাধ্যমে বাস্তবায়ন করছেন।এ বাছুর জেলেদের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। ইলিশ মাছ সময় মতো বংশ বিস্তার লাভ করতে পারলে এটা আমাদের জাতীয় সম্পদ হিসেবে আমাদের দেশের কাজে আসবে। ইলিশ রপ্তানি করে আমরা বৈদেশিক মুনাফা অর্জন করতে পারি যা আমাদের দেশের উন্নয়নে কাজে আসে।

উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে প্রথম ৩২ জনকে পরে আরো ১৬ জন, মোট ৪৮ জন জেলেকে বকনা বাছুর বিতরণ করা হয়েছে। এ কার্যালয়ের কর্মকর্তাগণ নিয়মিত জেলেদের বাড়িতে গিয়ে বাছুর লালন-পালন খোঁজ রাখছেন। যদি কোন বাছুরের সমস্যা দেখা যায় তাহলে সাথে সাথে উপজেলা প্রাণী সম্পদের মাধ্যমে ফ্রিতে ঔষধ ও চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। জেলেদের কর্মসংস্থান তাদের মূল লক্ষ্য।

এ বিষয়ে কথা বললে, জেলে রফিক ইসলাম, মান্নান ফরাজী, রহমান দেওয়ান বলেন, গত কয়েক দিন ধরে বকনা বাছুর পাওয়ার খবর পেয়ে স্বপ্ন দেখি বাছুর টি লালন-পালন করে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করব। ইলিশ সংরক্ষনের সময় সরকারি নির্দেশনা মেনে চলব নিজেদের ভাগ্য নিজেরা পরিবর্তন করব। আমরা হবে বড় খামারী।সেই সাথে কর্তৃপক্ষের প্রতি তারা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।