• ঢাকা
  • শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১৫ অপরাহ্ন

মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানদের মূল্যায়ন না করাই প্রতিবাদে পাইকগাছায় সাংবাদিক সম্মেলন


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৩, ২০২০, ৪:৩৬ অপরাহ্ন / ২৫৭
মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানদের মূল্যায়ন না করাই প্রতিবাদে পাইকগাছায় সাংবাদিক সম্মেলন

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনিতে ৯ ডিসেম্বর মূক্ত দিবসে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর অনুষ্ঠানে আয়োজকরা যথাযথ মূল্যায়ন না করাই প্রতিবাদে রবিবার পাইকগাছা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স সাংবাদিক সম্মেলন করেছে মুক্তিযোদ্ধারা । মুক্তিযোদ্ধা সংসদ পাইকগাছা উপজেলা কমান্ড ও ১০ টি ইউনিয়নে কমান্ড ও ডেপুটি কমান্ডাররা এ সংবাদ সম্মেলন করেছে। উপজেলার সাবেক কমান্ডার শেখ শাহাদাৎ হোসেন বাচ্চু সংবাদ সম্মেলনে তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, ৭১ সালে কপিলমুনি রাজাকার ক্যাম্প দখল করে লেপ্টনেন্ট গাজী রহমত উল্লাহ , শেখ কামরুজ্জামান টুকু ও ইউনুস আলীর নেতৃত্বে অন্যান্য কমান্ডার স,ম,বাবর আলী,মোড়ল আঃ সালাম, ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান,স,ম, আলাউদ্দীন, শেখ শাহাদাৎ হোসেন বাচ্চু,ওমর ফারুক,বিনয় রায়, আবু জাফর, আবুল কালাম আজাদ ময়নুল সহ আরো অনেকে।৯ ডিসেম্বর কপিলমুনিতে মুক্ত দিবসে মুক্তি যোদ্ধাদের ও তাদের সন্তানদের যথাযথ মূল্যায়ন করা হয়নি । যে কারণে অনুষ্ঠান মুক্তিযোদ্ধারা ও তাদের সন্তানরা বয়কট করে।এ বিশ্ব মহামারী করোনার কারনে সরকার জনসমাগম নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সেখানে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে অনাহুত জনসমাগম সত্যি নিন্দনীয়।এমন কি জনসভায় এক যুবক বিভিন্ন অনাহুত বক্তৃতা আমাদের বিষ্মিত করেছে।তাই আমরা মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রীর অনুষ্ঠান বয়কট করতে বাধ্য হয়। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন মঞ্চে যুব নেতা আঃ রাজ্জাক রাজু বক্তৃতায় বলেন বিপথগামী সেনা সদস্যরা ৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু সহ স্বপরিবারে হত্যা করে দেশ কে কলঙ্গমুক্ত করেছে এর তিব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও বিচার দাবি জানাচ্ছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক ডেপুটি কমান্ডার আঃ রাজ্জাক মলঙ্গী সহ ১০ টি ইউনিয়নের কমান্ডার ডেপুটি কমান্ডারগন।