• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৫১ পূর্বাহ্ন

বিদ্যুতের অভাবে ৭০ বিঘা জমির চাষাবাদ অনিশ্চিত


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৬, ২০২৩, ১২:২৪ পূর্বাহ্ন / ১২
বিদ্যুতের অভাবে ৭০ বিঘা জমির চাষাবাদ অনিশ্চিত

নিজস্ব প্রতিবেদক,নওগাঁঃ একটি গভীর নলকূপে বিদ্যুৎ সংযোগ না দেয়ায় নওগাঁর আত্রাই উপজেলার চাপড়া গ্রামে প্রায় ৭০ বিঘা জমিতে বোরো আবাদ চাষ অনিশ্চি হয়ে পড়েছে।

জানা গেছে, আত্রাই উপজেলার চাপড়া গ্রামে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি নওগাঁ-১ এর আওতায় প্রায় ৭০ বিঘা কৃষি জমির চাষাবাদে সেচ দেয়ার জন্য প্রকল্পের সংশিস্নষ্ট সব বিষয়াদি সম্পন্ন করে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি আত্রাই এর কার্যালয়ে যথানিয়মে বিদ্যুৎ সংযোগ চেয়ে আবেদন করা হয়। পরে কর্তৃপক্ষ এলাকা সার্ভে করে। কিন্তু আজ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সংযোগ না পাওয়ায় সেচের অভাবে কৃষকরা রোপা আমন ও বোরো ধান রোপণ করতে পারছেন না।

চাপড়া গ্রামের কৃষক মোতাজুল জানান,গত ইং ১৩/৬/২২তারিখে আত্রাই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি নওগাঁ-১ অফিসে বৈদ্যুতিক সংযোগ নিতে অফিস কর্তৃপক্ষের নিকট মিটার সংযোগ এর জন্য টাকা জমা প্রদান করা হয় লাইসেন্স নং২৩৩/২০২১-২২ নলকুপ শ্রেনি এসটিডাব্লু কৃষি জমি চাষাবাদের জন্য সব কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। কিন্তু পল্লী বিদ্যুতের গরিমশিতে সংযোগ না দেয়ায় সেচের অভাবে তারা ধানের চারা রোপণ করতে পারছেন না। গভীর নলকূপে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে প্রায় ৭০ বিঘা কৃষি জমিতে চাষাবাদের সুযোগ দেয়ার দাবি জানান তিনি। কিন্তু দরখাস্তকারীর বর্গাদার মোঃ আব্দুল কুদ্দুস পল্লী গত ১০/০১-২৩ তারিখে বিদ্যুত এর খুঁটিতে মিটার সংযোগ দিতে গেলে একই গ্রামের কৃষক (১) মোঃ সহিদুল (২)রতন সরদার পিতা মোঃআত্তাব আলী সরদার (৩)সাইফুল ইসলাম পিতা সহিদুল ইসলাম(৪)মোঃআত্তাব আলী সরদার (৫)সাত্তার সরদার (৬) মোঃ লেবু সরদারগং পল্লী বিদ্যুত এর খুঁটিতে মিটার সংযোগ দিতে বাঁধা সৃষ্টি করে এবং মার পিটের চেষ্টা করে ও প্রাণ নাষের হুমকি দেয়। আমি নিরুপায় হয়ে এ বিষয়ে আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত আবেদন করি। আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইকতেখারুল ইসলাম বিষয়টি আত্রাই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি নওগাঁ-১ ডিজিএম কে ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দ্দেশ দেন তারপরও এখণ পর্যন্ত মিটার সংযোগ দেয়া হয় নাই। এ বিষয়ে আত্রাই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম কামরুজ্জামান জানান, যথা নিয়মে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে আবেদন করলে তাকে মিটার সহ যাবতীয় যন্ত্রাংশ দেয়া হয় কিন্তু ওই গ্রামে কিছু সংখ্যক কৃষক তাদের পল্লী বিদ্যুৎতের খুটি থেকে সংযোগ নিতে গেলে ইরি- বেরো কৃষকরা বলেন আমরা স্কীম করতে পূর্বে আত্রাই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নিকট থেকে চারটি পিলার টাকা দিয়ে ক্রয় করতে হয়েছে।আমরা কেন অভিযোগকারীকে বিনা খরচে মিটার সংযোগ দিতে দিবো। এলাকাবাসীরা দাবী এ বিষয় আত্রাই পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি নওগাঁ-১ ডিজিএম দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে একদিকে বিদ্যুতের অভাবে ৭০ বিঘা জমির চাষাবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়বে অন্যদিকে মিটার সংযোগ নিয়ে বড় ধরনের দূঘটনা ঘটার আশংক করছে।