• ঢাকা
  • শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৩২ অপরাহ্ন

বিআরটিসির কারিগরদের মাসব্যাপি প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ২৯, ২০২৪, ৫:৩২ অপরাহ্ন / ৫৩
বিআরটিসির কারিগরদের মাসব্যাপি প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন

এম শিমুল খান, ঢাকাঃ সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের (বিআরটিসি) প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, তেজগাঁও এ কর্পোরেশনে কর্মরত কারিগরদের মাসব্যাপী ইঞ্জিন, বডি এবং অটো-ইলেক্ট্রিক ও এসি সিস্টেম কোর্সের উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোঃ তাজুল ইসলাম, চেয়ারম্যান, বিআরটিসি। এ সময় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিআরটিসি’র পরিচালকবৃন্দসহ অন্যান্য উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ।

স্বাগত বক্তব্যে কোর্স পরিচালক ফাতেমা বেগম (জিএম, আইসিডব্লিউএস ও প্রশিক্ষণ) বলেন, আমাদের চেয়ারম্যান মহোদয়ের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও দূরদর্শী চিন্তার ফসল আমাদের এই স্মার্ট বিআরটিসি। তাঁর দক্ষ নেতৃত্বে বিআরটিসি অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।

বিআরটিসিকে আরো গতিশীল করার লক্ষ্যে প্রশিক্ষণের উপর গুরুত্বারোপ করা হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন ডিপোতে কর্মরত মোট ৩০ জন কারিগরদের কর্মদক্ষ ও স্বক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ মাসব্যাপি প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে। এই প্রশিক্ষণ কারিগরদের মধ্যে কর্মদক্ষতা ও আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি করবে।

প্রশিক্ষণার্থী মাহবুবুর রহমান, কারিগর-সি বলেন, চেয়ারম্যান স্যারের জন্যই আমরা বিআরটিসিতে ভালো একটি পরিবেশ পেয়েছি।

অন্য একজন প্রশিক্ষণার্থী বলেন, একটা সময় বিআরটিসির পরিবেশ খুবই খারাপ ছিলো। যায় গাড়ি আসে নাই, আসে গাড়ি যায় নাই এ রকম ছিলো বিআরটিসির অবস্থা। যাত্রীরা টিকেট কেটে বসে থাকতো। সেই বিআরটিসি বর্তমানে স্বর্ণযুগ পার করছে।

প্রশিক্ষণার্থী আসাদুল হক বলেন, এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমরা দক্ষ হবো এবং ডিপোতে গিয়ে তার বাস্তব প্রতিফলন ঘটাতে পারবো।

পরিচালক (কারিগরি) কর্নেল মোহাম্মদ মোবারক হোসেন মজুমদার, পিএসসি বলেন, এই বদলে যাওয়া বিআরটিসিতে যোগদান করে নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছি। বিআরটিসি’র মূল চালিকা শক্তি হচ্ছে কারিগর ও অপারেটর (চালক)। প্রশিক্ষণের মাধ্যে প্রশিক্ষণার্থীদের মনোবল বৃদ্ধি পাবে। কর্মচারীদের দক্ষতা, যোগ্যতা ও নৈপুণ্য বৃদ্ধির মাধ্যমে দক্ষতার সাথে কার্যসম্পাদনের জন্য প্রশিক্ষণের গুরুত্ব অপরিসীম।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বলেন, প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে বিভিন্ন কাজ সঠিক ভাবে সম্পাদন বিষয়ে শিক্ষণ দেওয়াই হলো প্রশিক্ষণ। এরমাধ্যমে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কার্য সম্পাদন, যোগ্যতা, কর্মদক্ষতা ও স্বক্ষমতা বৃদ্ধির চেষ্টা করা হয়। প্রশিক্ষণ হলো কর্মচারীদের সাফল্যের চাবিকাঠি। যার মাধ্যমে কর্মী কার্য সম্পাদন বিষয়ে বাস্তব জ্ঞান, দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারে। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সম্পদের সর্বোচ্চ এবং কাম্য সদ্ব্যবহার সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হয়।