• ঢাকা
  • রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:০৯ পূর্বাহ্ন

বঙ্গবন্ধু কে হত্যা পর আমরা কিছুই করতে পারিনি এ লজ্জা এই কলঙ্ক চিরজীবন বয়ে বেড়াতে হবে——–তারিন জাহান


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ২৯, ২০২১, ৯:১৯ অপরাহ্ন / ২১০
বঙ্গবন্ধু কে হত্যা পর আমরা কিছুই করতে পারিনি এ লজ্জা এই কলঙ্ক চিরজীবন বয়ে বেড়াতে হবে——–তারিন জাহান

এম শিমুল খান, ঢাকাঃ বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও অন্যতম মুখপাত্র অভিনেএী তারিন জাহান বলেছেন বঙ্গবন্ধু কে হত্যা পর আমরা কিছুই করতে পারিনি এ লজ্জা এই কলঙ্ক চিরজীবন বয়ে বেড়াতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনেকে সৈনিক হিসেবে দাবি করেন অনেকে বীর বিক্রম, বীর উত্তম, বীরমুক্তিযোদ্ধা, আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী ছিল সেই দিন সাহস করে বঙ্গবন্ধুর লাশটিও কেউ দেখতে যায়নি জীবনের ভয়ে পরাজিত সৈনিকের মতো আমরা ঘরে বসে ছিলাম।

যে নেতা চিরজীবন বাঙালি জাতির জন্য নিজের জীবনকে বিলিয়ে দিয়েছেন তার জন্য আমরা কিছুই করতে পারিনি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি বেঁচে থাকতো বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার আমরা কখনও করতে পারতাম না আওয়ামী লীগ বিলীন হয়ে গেছে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় কখনো আসতে পারত না আল্লাহর অশেষ রহমতে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানাকে বাঁচিয়ে রেখেছিল বাঙালি জাতির ভাগ্য ফেরানোর জন্য দেশের উন্নয়নের জন্য।

জননেএী শেখ হাসিনার কারণে ভিক্ষুকের জাতি থেকে মুক্তি পেয়েছে আজ বাংলাদেশ মধ্য আয় দেশে পৌঁছে। সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল। বাংলাদেশর চিত্র পাল্টে গেছে মনে হয়,কোন বিদেশি দেশে বসবাস করছি। এটা সম্ভব হয়েছে মানবতার মা বাঙালি জাতির ভাগ্য বিধাতা, দেশরত্ন, অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির মূর্ত প্রতীক আমাদের বটবৃক্ষ জননেএী শেখ হাসিনা। কোন ভাই ও বোন নেতা এর রাজনীতি নয় একমাএ শেখ হাসিনার।

জননেত্রী শেখ হাসিনা আলোতে আমরা সবাই আলোকিত। অভিনেত্রী তারিন জাহান তার বাসভবনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট শাহবাগ থানা শাখা নেতৃবৃন্দরা সাক্ষাৎ করতে গেলে তার বক্তব্যে এ কথা বলেন।