• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০২:০৯ পূর্বাহ্ন

পটুয়াখালীর বাউফলে ঈদের দিনে বসত ঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ১৩, ২০২৪, ১০:৩৪ অপরাহ্ন / ১৮
পটুয়াখালীর বাউফলে ঈদের দিনে বসত ঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, পটুয়াখালীঃ পটুয়াখালীর বাউফলে বসতঘরে হামলা ভাংচুর চালিয়ে টাকা পয়সা ও স্বর্নলংকার লুটপাট করে সৈয়দ আল ফরহাদ (২৭) নামের একজনকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করার সংবাদ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ঈদের দিন রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টার সময় বগা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড বানাজোড়া গ্রামে সৈয়দ আবুল কালামের বসত ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে আহত আল-ফরহাদ বাদী হয়ে বাউফল থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। মামলা নং -১৬, ধারা-১৪৩/৪৪৮/৩২৩/৩২৫/৩০৭/৩৫৪/৩৭৯/৪১৭/৫০৬ পেনাল কোড রুজু করা হয়েছে।

অভিযোগ সুত্রে, আসামিরা হলেন, মনির হোসেন (৩৮), পিতা-মোঃ ওয়াজেদ হাওলাদার, সাইফুল ঘরামী (৩৮), রাজু ঘরামী (৩২), জীবন ঘরামী (২১), উভয় পিতা-খালেক ঘরামী, খালেক ঘরামী (৫৬), পিতা-মৃত আয়নাল ঘরামী। এছাড়াও অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জন।

বলাহয় পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে লাঠিসোটা, লোহার রড, বগি দা, চাকু নিয়া একত্রিত হয় বসতবাড়িতে হামলা চালায়। এসময় বসত ঘরের বন্ধ থাকা দরজা ভেঙে বেআইনী জনতাবন্ধে অনধিকার প্রবেশ করিয়া আসবাবপত্র ভাংচুর ও সৈয়দ আল ফরহাদ কে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। ছেলেকে বাচাতে মা ফাতিমা বেগম (৪৫) এগিয়ে আসলে বিবাদীরা তাকে কিল ঘুষি লাতি মেরে আহত করে এবং পরোনের কাপড় চোপড় টেনে ছিরে ফেলে লজ্জাশ্লীতাহানী ঘটায়। হামলাকারীরা বসত ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর চালিয়ে প্রায় ১ লক্ষ ২০ টাকার ক্ষতিসাধন করে। স্টিলের আলমারি ভেঙে নগত ৫০ হাজার টাকা ও স্বর্নলংকার লুটপাট করে নিয়ে যায়।

এছাড়াও আহত ফরহাদের স্ত্রীর গলায় থাকা দেড় ভড়ি ওজনের স্বর্নের হাড় মুল্য অনুমান ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা, হাতে থাকা স্বর্নের রুলি একজোরা ছিনিয়ে নেয়। তাদের ডাকচিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসলে হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায় হামলাকারীরা।আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সৈয়দ আল ফরহাদ কে বাউফল উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে রেফার করালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভর্তি রয়েছেন।

এ ব্যাপারে আহত ফরহাদের মা ফাতিমা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্য মারধর করে ঘরে লুটপাট করার সময় আমাকেও মারধর করে এবং পরনের কাপড় চোপর টেনে ছিরে ফেলে শ্লীলতাহানি ঘটায়। আইনের মাধ্যমে সন্ত্রাসীদের উপযুক্ত বিচার দাবি করেন। আহতের ভাই সাইদ বলেন, হামলাকারীরা এলাকায় ত্রাস তান্ডব করে বেড়ায় এরা মাদক ও জুয়ার সাথে যুক্ত রয়েছে।তিনি আরও বলেন, অভিযোগ করতে থানায় গেলে পরবর্তীতে খালি ঘর পেয়ে সুকেজের তালা ভেঙে নগত ৪ লক্ষ টাকা নিয়ে গেছে হামলাকারীরা।

সরেজমিনে গিয়ে হামলার ঘটনার সত্যতা জানা গেছে এ বিষয়ে অভিযুক্তদের সাথে বিভিন্ন মাধ্যমে চেষ্টা করেও তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি তাদের এলাকায় উপস্থিত পাওয়া যায়নি।

বাউফল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শোনিত কুমার গায়েন বলেন, এ ঘটনায় থানায় এজাহার দায়ের করা হয়েছে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।