• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন

নানা আয়োজনে লায়ন গনি মিয়া বাবুলের জন্মদিন উদযাপন


প্রকাশের সময় : মে ৮, ২০২৪, ৭:১৪ অপরাহ্ন / ১৭
নানা আয়োজনে লায়ন গনি মিয়া বাবুলের জন্মদিন উদযাপন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সাহিত্যিক, সমাজসেবক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল এর ৫৪তম জন্মদিন নানা আয়োজনে ৬ মে বিকালে ঢাকার পুরানাপল্টনস্থ বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ৫১,৫১/এ পুরানা পল্টন, ঢাকায় উদযাপন করা হয়। এ উপলক্ষে কবিসংসদ বাংলাদেশ ও ৫৪তম জন্মোৎসব উদযাপন পরিষদের যৌথ উদ্যোগে ‘মানবতার কল্যাণে কাজ করায় মানুষের জন্মের স্বার্থকতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা, কেক কাটা ও ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান প্রভৃতি কর্মসূচি পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলা একাডেমির পুরস্কারপ্রপ্ত কবি নাসির আহমেদ। কবি শাফীকুর রাহীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কবিসংসদ বাংলাদেশের সিনিয়র সহ-সভাপতি কবি আসাদ কাজল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কবি নাহিদ রোকসানা, কবি কুমার সুশান্ত সরকার, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার নির্বাহী সভাপতি শাজাহান মোল্লা, দৈনিক বঙ্গজননীর সম্পাদক কামরুজ্জামান জিয়া, দৈনিক স্বদেশ বিচিত্রার সম্পাদক অশোক ধর, জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের সভাপতি এম এ জলিল ও জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার সিনিয়র সহ-সভাপতি আবুল বাশার মজুমদার। জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রাসেল সরকার।

কবিসংসদ বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক কবি তৌহিদুল ইসলাম কনকের সঞ্চালনায় লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল এর জন্মদিনে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আইন উদ্দিন আহমেদ, কথাসাহিত্যিক হালিমা বেগম, কবি ইকবাল হোসেন, কবি শাখের বিপ্লব, প্রকাশক সাহেদ বিপ্লব, কণ্ঠশিল্পী নীলা চৌধুরী, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার দপ্তর সম্পাদক মোঃ রাব্বি মোল্লা, বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের নির্বাহী সদস্য মোঃ মাসুদ আলম, পাক্ষিক ইতি কথার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোঃ নুরুল ইসলাম বাবুল, রুর‌্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ) এর সাহিত্য সম্পাদক মো. সাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কবি নাসির আহমেদ বলেন, লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল মানবিক গুণাবলিতে উজ্জীবিত একজন শৃজনশীল মানুষ। তিনি দীর্ঘদিন যাবত মানবতার কল্যাণে কাজ করে আসছেন। মানবতার কল্যাণে কাজ করাই জন্মের স্বার্থকতা।

লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমি আজীবন মানবতার কল্যাণে কাজ করতে চাই। তিনি প্রত্যেককে সামর্থ অনুযায়ী অসহায় মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। উল্লেখ্য লায়ন মো. গনি মিয়া বাবুল ৮০’র দশক থেকে জাতীয় সংবাদপত্রসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কবিতা, ছড়া, প্রবন্ধ ও কলাম লিখে ইতিমধ্যে যথেষ্ট পরিচিতি লাভ করেছেন।

তার প্রকাশিত বইয়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছোটদের শিক্ষামূলক ছড়া ও গল্প, শুভ্রতা চলে গেছে নীড়ে, একটি কবিতা, ভালবাসতে বাসতে, সিডর বিধ্বস্ত বকুলতলা, নীলজলে প্রেম, একটি বক্তৃতার পংক্তিমালা, নবম শ্রেণীর কৃষি শিক্ষা সহায়ক বই, কিছু কথা, কৃষি ডিপ্লোমা ভর্তি সহায়ক বই উল্লেখযোগ্য।
লায়ন মো. গনি মিয়া বাবুল ১৯৭১ সালের ৬ মে গাজীপুর জেলার শ্রীপুরের টেপিরবাড়ী গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। বিশিষ্ট সমাজসেবক মো. ইসমাইল হোসেন এর ঔরসে ও মহিয়সী নারী আয়েশা খাতুন এর গর্ভের গৌরবান্বিত সন্তান তিনি।

তিনি প্রায় ৩৩ বছর যাবত সর্বস্তরে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে কাজ করে আসছেন। তিনি বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে গবেষণা করছেন এবং তার গবেষণালব্ধ প্রবন্ধ, নিবন্ধ ও কলাম বিভিন্ন জাতীয় ও আঞ্চলিক গণমাধ্যমে প্রকাশ ও প্রচার হয়ে আসছে। তার এ সকল লেখা ইতোমধ্যে যথেষ্ট পাঠকপ্রিয়তা অর্জন করেছে। তার নিজ এলাকায় তিনি মসজিদ, মাদ্রাসা, স্কুল-কলেজ, শিশু গণশিক্ষা কেন্দ্র, পাঠাগার প্রভৃতি জনহিতকর প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেছেন।