• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন

তারেক রহমান ১১ ডিসেম্বর দেশে ফিরবেন, বললেন বিএনপি নেতা


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২০, ২০২২, ১০:১৬ অপরাহ্ন / ১৯
তারেক রহমান ১১ ডিসেম্বর দেশে ফিরবেন, বললেন বিএনপি নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ১১ ডিসেম্বর দেশে ফিরবেন এবং সেদিন থেকেই তার ‘নির্দেশে দেশ চলবে’ বলে দাবি করেছেন নারায়ণগঞ্জ বিএনপির এক নেতা। কয়েকটি মামলায় দণ্ড নিয়ে প্রায় দেড় দশক ধরে সপরিবারে লন্ডনে থাকা তারেক এখন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ বৃহস্পতিবার বলেন, ১১ ডিসেম্বর থেকে এই বাংলাদেশ চলবে তারেক রহমানের নির্দেশে। অবৈধ সরকারের নির্দেশ আর চলবে না। ১১ তারিখে তারেক রহমান বীরের বেশে ফিরে আসবেন। সবাই আমরা তারেক রহমানকে বরণ করতে ১১ তারিখে বিমানবন্দরে যাব। যে বিমানবন্দরের নাম তারা পরিবর্তন করেছে সেই বিমানবন্দরের নাম আবারও জিয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হবে। ১১ তারিখ তারেক রহমান জিয়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবেন। বিএনপির এ নেতা বলেন, আমরা তারেক রহমানকে বিমানবন্দর থেকে এগিয়ে নিয়ে বঙ্গভবন ও গণভবনে তাকে বসাব। তাকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে তারপর আমরা রাজপথ ছাড়ব।

গত ৮ অক্টোবর রাজধানীর সেগুনবাগিচায় জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের এক অনুষ্ঠানে বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর কমিটির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান বলেন, আগামী ১০ ডিসেম্বরের পরে বাংলাদেশ চলবে ‘খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের কথায়।ওইদিন ‘কাঁচপুর ব্রিজ, টঙ্গী ব্রিজ, মাওয়া রোড, আরিচা রোড, টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া, রূপসা থেকে পাথুরিয়া সারা বাংলাদেশ বন্ধ করে’ দেওয়ার জন্যও দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

তার ওই ঘোষণা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনা শুরু হয়। এর মধ্যেই ১০ অক্টোবর দলটির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী লক্ষ্মীপুরে এক অনুষ্ঠানে বলেন, খুব শিগগির তারেক রহমান যুক্তরাজ্য থেকে দেশে আসবেন। কোনো ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না।

বিএনপি নেতাদের ওই ঘোষণাকে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বর্ণনা করেছিলেন ‘খোয়াব’। হিসেবে। তিনি বলেছিলেন, এমন স্বপ্ন দেখলে তো খালেদা জিয়াকে আবার ‘জেলে পাঠানোর কথা’ ভাবতে হবে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে এক সমাবেশে বিএনপি নেতা অধ্যাপক মামুন মাহমুদ আবারও বিষয়টি অবতারণা করলেন। সারাদেশে নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা, মামলা ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে জেলা বিএনপির উদ্যোগে এই বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়।

এ সময় জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মামুন মাহমুদ আরও বলেন, আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকার সমাবেশে এই সরকারের বিদায় ঘণ্টা বাজবে। সবাই রজনীগন্ধা নিয়ে ঢাকার সমাবেশে হাজির হবেন। সেই রজনীগন্ধা হাতে আমরা বেগম খালেদা জিয়াকে আমাদের মঞ্চে বরণ করে নেব। তিনি মঞ্চে উঠে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন। এই রজনীগন্ধা দিয়ে এই অবৈধ জালেম সরকারকে আমরা পদত্যাগে বাধ্য করবো।

জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবির সভাপতিত্বে এতে আরও বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক জাহিদ হাসান রোজেল, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক গোলাম ফারুক খোকন, সদস্যসচিব মশিউর রহমান রনি।