• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

ডিবি পুলিশ দিয়ে সম্পাদক ও সাংবাদিককে গুম করার হুমকি : রাজউকের ঠিকাদার দিপুর


প্রকাশের সময় : জুলাই ২৪, ২০২৩, ৮:১৮ পূর্বাহ্ন / ১৪৬
ডিবি পুলিশ দিয়ে সম্পাদক ও সাংবাদিককে গুম করার হুমকি : রাজউকের ঠিকাদার দিপুর

এম রাসেল সরকারঃ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি পত্রিকার সম্পাদক, বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সদস্য, বাংলাদেশ সংবাদপত্র সংস্থা বিএসপি’র সাধারণ সম্পাদক এমজি কিবরিয়া চৌধুরী এবং দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি পত্রিকার বিশেষ প্রতিবেদক মুস্তাকিম নিবিড়কে স্বপরিবারে বাসা থেকে তুলে নিয়ে যাওয়াসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছেন রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে জনবল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ‘এটি কনস্ট্রাকশন-এর স্বত্ত্বাধিকারী দিবাকর চন্দ্র রায় ওরফে দিপু।

গত মঙ্গলবার রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) বাস্তবায়ন-৪ এর নির্বাহী প্রকৌশলী, মাদানী এভিনিউ হতে বালু নদী পর্যন্ত (মেজর রোড-৫) প্রশস্তকরণ এবং বালু নদী হতে শীতলক্ষ্যা নদী পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এবং উত্তরা এপার্টমেন্ট প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ কাইচারের বিরুদ্ধে জাত আত্মবহির্ভূত সম্পদ অর্জনের সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে সংবাদ প্রকাশের পূর্বে বক্তব্য চাইলে তার পক্ষ থেকে দিবাকর চন্দ্র রায় ওরফে দিপু সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিড়কে অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিতে থাকেন। এবং দিবাকর রায় দিপু বলেন তোর সম্পাদক ও তোকে ডিবি পুলিশ দিয়ে এটিকে তুলে নিয়ে মাটিতে পুতে ফেলবো। তার সামনে নাকি ডিবি পুলিশ বসে থাকে। সে সময় দিবাকর অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন এবং নিজেকে ঢাকার নামিরা বলে দাবি করেন।

ফোনে কথোপকলনরত আরেকজন দিপুকে থামতে অনুরোধ করলেও তিনি থামেননি, তিনি বলেন দিপু নাকি একটি ব্র্যান্ড। দেশের দেশের চার পাচটি টেলিভিশন ও পত্রিকার মালিক নাকি তার কথায় উঠাবসা করে। দিপু ফোন কলে সম্পাদক এবং সাংবাদিক দু’জনকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ফাঁসানোর হুমকি দেন। শুধু তাই নয়, রাজউক ভবনে প্রবেশ করলে সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিড়ের বিপদ হবে, এমনকি কোন প্রতিবেদক যেন রাজউক ভবনে না যায় এ বলেও শাসান তিনি।

এছাড়াও দিপু বলেন সংবাদ প্রকাশ করলে সম্পাদক কিবরিয়া চৌধুরী ও সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিড়ের বিরুদ্ধে মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলাসহ বিভিন্নভাবে ফাঁসানো হবে। এ ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক বলে নিন্দা জানিয়েছেন রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অনেক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ। তারা এর সুষ্ঠু তদন্ত করবে বলে দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি পত্রিকা কর্তৃপক্ষ এবং বিভিন্ন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দকে আশ্বস্ত করেন।

সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিড় জাতীয় অর্থনীতিতে বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন, সম্পাদক কিবরিয়া চৌধুরী ও সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিত্তকে হুমকির ঘটনায় তাঁর নিন্দা জানিয়েছেন জাতীয় প্রেসক্লাব, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্র্যাব), ডিফেন্স জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন (ডিজ্যাব), বাংলাদেশ শিপিং জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, এন্ড ঢাকা জার্নালিস্ট ফোরাম, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা এবং বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন সাংবাদিক নেতৃবন্দ। নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, হিউম্যান এইড ইন্টারন্যাশনাল, মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান হেল্পার এবং হিউম্যানিস্ট সোসাইটি।

সম্পাদক কিবরিয়া চৌধুরী ও সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিড় এবং তার পরিবারকে হত্যার হুমকিতে আরও নিন্দা জানিয়েছে ভারত জাতীয় প্রেসক্লাবের সদস্য, ভারতের সিনিয়র সাংবাদিক অমিত ভট্টাচার্য, মীনাক্ষী দেবীসহ ভারত ও বাংলাদেশে কর্তব্যরত ভারতের বিভিন্ন সাংবাদিক ও মিডিয়া ব্যক্তিবর্গ। সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিড়কে হুমকির ঘটনায় আরও নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ড. কুতুব উদ্দিন চৌধুরী, সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী এবং সেন্ট্রাল লিগ্যাল এইড-এর অন্যতম সদস্য এডভোকেট রাসেল মল্লিক, বাংলাদেশ অ্যারিস্টোকেট লা ইয়ার্স ফোরাম এবং নাবলা।

সম্পাদক ও সাংবাদিক পরিবারের উপর হুমকির ব্যাপারে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের স্বাধীনতা চিকিৎসক ফোরামের স্বাচিব সহ-সভাপতি সহকারী অধ্যাপক ডা. এমএ আজিজ, সহকারী অধ্যাপক ডা. এমদাদুল হক, সাইফুল ইসলাম, ডা. ইমরান হাফিজ। পেশাজীবী প্রকৌশলীদের বিভিন্ন সংগঠনের সদস্য এবং নেতৃবৃন্দও এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিশ্ববরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী প্রয়াত ডক্টর ওয়াজেদ মিয়া কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু শিশু একাডেমি কেন্দ্রীয় এবং মহানগর শাখার নেতৃবৃন্দ। আরও নিন্দা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদের (বিএসপি) সভাপতি। বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সদস্যবৃন্দ।

তারা সম্পাদক ও সাংবাদিক মুস্তাকিম নিবিড়ের জানমালের নিরাপত্তা রাজউকের ঠিকাদার দিপু এবং দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তার বিষয়ে তদন্তপূর্বক বিচারের আওতায় আনার জোর দাবী সাংবাদিক সমাজ।