• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ Jun ২০২৪, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন

টোকিওতে আয়োজন করা হয় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভার


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ২৩, ২০২৩, ৮:৫৬ অপরাহ্ন / ২৩৫
টোকিওতে আয়োজন করা হয় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভার

জাপান থেকে পি আর প্ল্যাসিডঃ ২০ আগষ্ট রবিবার সন্ধ্যায় টোকিওতে লিটল বাংলাদেশ খ্যাত এলাকা কিতা ওয়ার্ডস্ত হিগাশি জুজোর শিমিন হলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জাপান শাখার উদোগে আয়োজন করা হয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৮ তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে দোয়া এবং আলোচনা সভার। আলোচনা সভার শুরুতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সাথে নিহত অন্যান্যদের আত্মার মাগফেরাত উপলক্ষে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

আলোচনা সভার প্রধান বক্তা ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা তাজউদ্দিন মাহমুদ রবি চৌধুরী। তিনি তার বক্তব্যে ৭৫ এর ১৫ আগষ্ট নুশংস ঘটনার সাথে জড়িতদের যারা এখনও বিদেশে পালিয়ে আছে তাদের দেশে এনে বিচারের ফলাফল কার্যকর করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। সেই সাথে আগামী নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে পুনরায় জয়লাভ করে ক্ষমতায় এনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেশকে স্মার্ট বাংলাদেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে তার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানান।

সভায় বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা দেশের সূর্য সন্তান শ্রী অজিত কুমার বড়ুয়া তার বক্তব্যে যুদ্ধের স্মৃুতিচারণ করতে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর দেশ স্বাধীন করতে দেশের সকল মানুষকে সংগঠিত করার মাধ্যমে স্বাধীনতা ঘোষণা দেবার কথা বলেন। সে সাথে এমন নুশংস ঘটনার কারণে নিন্দা প্রকাশ করে নতুন প্রজন্মকে দেশ গড়ার কাজে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নেওয়াজ শরীফ, অসিত রয়, সাইদুর রহমান সাঈদ, এইচ এম শাহারিয়ার জামান, মো: তানজিল আহমেদ অয়ন , মো: তানজিম প্রমূখ।

সভার সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ জাপান শাখার আহব্বায়ক এ কে এ বশির উদ্দিন । তিনি তার জালাময়ী বক্তবে খুনীদের বিচার ও শাস্তি কার্যকর করার আহ্বান জানিয়ে বলেন বাংলাদেশে স্বাধীনতা বিরোধী এবং দেশ বিরোধী ষডযন্ত্রকারীদের থাকার কোনো অধিকার নেই। সেসাথে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান।

সভার শেষ পর্যায় এসে একুশে আগস্ট বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের আত্মার জন্য দোয়া করা হয়। সভা পরিচালনা করেন যুগ্ম আহব্বায়ক এম এ মামুন।

উক্ত সভায় হল ভর্তী ছাত্র জনতা এবং বিভিন্ন পেশার লোক উপস্থিত ছিলেন। সবশেষে উপস্থিত সকলকে রাতের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়।