• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৪৯ অপরাহ্ন

টিকটকের ভিডিও এডিটিং করে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতিকে ফাঁসানোর পায়তারা


প্রকাশের সময় : জুলাই ২৬, ২০২২, ৭:০৯ অপরাহ্ন / ৮৭
টিকটকের ভিডিও এডিটিং করে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতিকে ফাঁসানোর পায়তারা

শেখ শিবলী সরকার, রাজশাহীঃ রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানার মতন দেখতে এক যুবকের অশ্লীল ছবি ও টিকটকের ভিডিও এডিটিং করে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে সাকিবুল রানার বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ জানিয়েছে নানা মহল।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বাঘা উপজেলা ছাত্রলীগ নামক একটি ফেক আইডি থেকে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের ত্যাগী, সাহসী ও সক্রিয় এ সভাপতির নামে ভুয়া অশ্লীল ভিডিও দিয়ে গুজব ছড়ানো হয়। জাস্ট টিভির অপরাধ অনুসন্ধান বিভাগ ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ইউনিট এর আইটি এক্সপার্ট টিম রানার বিরুদ্ধে গুজবে ব্যবহৃত ঐ ছবিটি পর্যালোচনা করেও নিশ্চিত হয় ছবিটি দূর্বল এডিটিং করা।

ভুক্তভোগী জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রানা এ বিষয়ে রাজশাহীর বাঘা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করেছেন। কিন্ত গুজব ছড়ানো এ ছবি দিয়েই রানার বিরুদ্ধে নিউজ করে কিছু অখ্যাত অনলাইন পোর্টাল। এমনটাই অভিযোগ রানার শুভাকাঙ্ক্ষী ও সমর্থকদের।

খোদ রানা এ ব্যাপারে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক মেইল বার্তায় জানান- দীর্ঘদিন ধরেই স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি জামাত জোটের মদদপুষ্ট একটি চক্র আমাকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে অপদস্থ করার মিশনে নেমেছে। কারণ দীর্ঘদিন ধরেই আমি রাজপথে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবীত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঝান্ডা উড়িয়ে যাচ্ছি। তাই ছাত্রলীগকে নেতৃত্বশূন্য করার ঘৃণ্য লক্ষ্যে অপচক্রটি একটি টিকটক ভিডিওর স্কিনশট নিয়ে তাতে এডিট করে আমার ছবি বলে গুজব ছড়াচ্ছে।

উল্লেখ্য, রানার বিরুদ্ধে হওয়া কিছু অখ্যাত অনলাইন পোটালের নিউজে বলা হয় রানা ছাত্রলীগের বিভিন্ন কর্মীদের কাছ থেকে বিকাশে টাকা নিয়েছেন কিন্ত রানার স্পষ্ট দাবি তার কোন বিকাশ একাউন্টই নেই।

রানার নামে প্রকাশিত ভুলভাল মিথ্যা ষড়যন্ত্র ওইসব ভুয়া সংবাদে রানাকে বিভিন্ন কৌশলে হেয় প্রতিপন্ন করতে বিএনপি জামায়াত শিবিরের এজেন্টরা নানানভাবে বিভিন্ন কায়দায় মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে দাবি জানান ত্যাগী জেলা ছাত্র লীগ সভাপতি রানা। তিনি আরও বলেন মিথ্যা অপপ্রচার ও ভুয়া বানোয়াট ষড়যন্ত্র চালিয়ে বিএনপি জামায়াত শিবিরের লোকজন কোনদিন লাভবান হতে পারিনি আজও পারবে না।

জানা গেছে, সংগ্রামী ও সক্রিয় নেতৃত্বে বাংলাদেশ ছাত্রলীগে রানার বেশ সুনাম রয়েছে। নেতৃত্বের অসাধারণ গুনাবলির কারণেই তাকে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচন করেন সিনিয়র নেতারা। আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কর্মসূচিতে দেশবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে বরাবরই বজ্রকন্ঠে আওয়াজ তুলে আসছেন রানা। তিলে তিলে নিজেকে তৈরি করেছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও দেশরত্ন শেখ হাসিনার আদর্শের একজন বলিষ্ঠ সৈনিক হিসেবে। রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে সফলভাবেই নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন তিনি। এমনকি আজও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তি করায় রাজশাহী জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সাঈদ চাঁদের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছেন রানা। তার উদ্যোগেই রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে আবু সাঈদ চাঁদকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয় এবং চাঁদের কুশপত্তলিকা দাহ করা হয়। মোটকথা বলিষ্ঠ কন্ঠস্বর, সাহসিকতা দিয়ে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের প্রাণভোমরা হয়ে উঠছেন রানা৷ কিন্ত তার এ রাজনৈতিক সফলতা ধূলিসাৎ করতে তৎপর স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি৷ সম্প্রতি তার নামে ছড়ানো মিথ্যা গুজব এরই অংশ বলে মনে করছেন রানা ও তার সমর্থকরা। এ ব্যাপারে সঠিক বিচার পেতে রানা পুলিশের সাইবার ইউনিটের সহায়তা কামনা করেন। পাশাপাশি তিনি প্রমাণ ছাড়া তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ারকে প্রশ্নবিদ্ধ করে এমন কোন সংবাদ না প্রচারেরও অনুরোধ জানান গণমাধ্যমের প্রতি।