• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০১:৫৫ পূর্বাহ্ন

টাকা দিলেই করেন সর্ব রোগের চিকিৎসা, প্রতারক কবিরাজের তেলেসপাতী কান্ড!


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ১৭, ২০২৪, ৭:২৬ অপরাহ্ন / ২৮
টাকা দিলেই করেন সর্ব রোগের চিকিৎসা, প্রতারক কবিরাজের তেলেসপাতী কান্ড!

আদম আলী, রাজবাড়ীঃ রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলায় এক প্রতারক কবিরাজের সন্ধান পাওয়া গেছে। কালুখালীর বোয়ালিয়া ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামে ওই প্রতারক কবিরাজের আস্তানা। প্রতারক কবিরাজের নাম লাইলী বেগম। সে ভবানীপুরের মিরাজ আলীর স্ত্রী। সপ্তাহের দু দিন, শনি ও মঙ্গলবার কবিরাজ লাইলী রোগী দেখেন। রোগ ভেদে তাকে দিতে হয় চিকিৎসার ফি। বন্ধাত্ব, জ্বীনেধরা, বশিকরন, গ্যাস্টিক, আলসার, জাদু, বান, টোনা এসব চিকিৎসার জন্য লাইলী কবিরাজের ফি ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা। এছাড়া ১ কেজি সরিসার তেল, ১ কেজি চিনি, ১টি মোড়গ, ২’শ গ্রাম জিরা,আধা কেজি মরিচ, আধা কেজি লবন, ২ কেজি দুধসহ ২৫ প্রকার উপকরন লাগে লাইলীর চিকিৎসা ব্যয়।

এছাড়া গরু, ছাগল, ভেড়াও দিতে হয় ওরশের নামে। তবে লাইলী বেগমের এ সব চিকিৎসায় কারো কোন উপকার হয় না। এটা এক ধরনের প্রতারনা।

কুষ্টিয়ার মোল্লা তেঘরিয়া থেকে আসা স্কুল ছাত্রী সুমাইয়া সিমু। টিকটক করার অপরাধে তার নানী কুলসুম তাকে কবিরাজের কাছে আনে। কবিরাজ লাইলী বলেছে ওকে জ্বীনে ধরেছে। ৩ হাজার টাকা আর লাল মোরগ দিলেই জ্বীন ছাড়িয়ে দিবো।

বালিয়াকান্দি উপজেলার আনন্দবাজার থেকে আসা ছকিনা জানায়, গ্যাষ্টিক চিকিৎসার জন্য কবিরাজ লাইলী বেগমকে ১৫ দিন আগে ২ হাজার টাকা দিয়েছি। রোগ ভালো হয়নি টাকাও ফেরত দিচ্ছে না।

চরচিলকা গ্রামের রুবিনা জানায়, বন্ধাত্ব ভালো করার জন্য কবিরাজ আমার ৫ হাজার টাকা নিয়েছে ৭ মাস আগে কিন্তু কাজ হয়নি।

কবিরাজী বিদ্যা সম্পর্কে জানতে চাইলে লাইলী বেগম জানায়, আমার কোন শক্তি নেই, জ্বীনে ভালো করে তাই ভালো হয়। অনেক ডিসি, এসপি, মিলিটারী আমার দরবারের চিকিৎসা নিতে আসে।

মানুষ প্রতারিত হলেও এই প্রতারনা চিকিৎসার অর্থ দিয়ে লাইলী বেগম গড়ে তুলেছে একতলা ভবন। এ নিয়ে কেউ কিছু লেখালেখি করলে পুড়ে ছারখার হবে। গোখরা সাপে কামড় দিবে বলে সংবাদ কর্মীদের ভয় দেখায় লাইলী।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা ইশরাত জাহান উম্মন জানান, এ ধরনের চিকিৎসা অবৈজ্ঞানিক। মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে কেউ এ ধরনের প্রতারনা করলে তা বন্ধ করতে হবে।