• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠি মহিলা কর্মকর্তা নাছরিনের প্রচেষ্টায় শিশু ধর্ষনকারী তপনকে আটক করেছে পুলিশে


প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ১৩, ২০২৩, ৯:১০ অপরাহ্ন / ২২
ঝালকাঠি মহিলা কর্মকর্তা নাছরিনের প্রচেষ্টায় শিশু ধর্ষনকারী তপনকে আটক করেছে পুলিশে

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঝালকাঠিঃ ঝালকাঠি জেলার সদর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাছরিন আক্তারের প্রচেষ্টা ও সহায়তায় ১৩ বছরের (আনুমানিক ) এক স্কুল ছাত্রী অন্তঃসত্তা হওয়ার অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ঝালকাঠি সদরের রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত বিমল চন্দ্র দাসের ছেলে তপন চন্দ্র দাস ওরফে টুলু দাস (৪৬) কে আটক করা হয়েছে। গত ১২ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে অভিযুক্ত তপনকে এলাকাবাসির সহায়তায় আটক করতে সক্ষম হয় সদর থানা পুলিশ।

এ বিষয় ঝালকাঠি জেলার সদর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাছরিন আক্তার জানান, আমি ছুটিতে ঢাকায় অবস্থান করছি। এলাকাবাসির সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি ঝালকাঠি সদর উপজেলাধীন এক গ্রাম থেকে ১৩ বছরের একজন স্কুল ছাত্রীকে সদরের রামচন্দ্রপুর গ্রামের ৪৬ বছর বয়সি তপন চন্দ্র দাস ওরফে টুলু দাস একাধিকবার ধর্ষন করায় সে অন্তঃসত্তা হয়। ঘটনার সত্যতা যাচাই করতে আমি স্থানীয় একজন সাংবাদিকের সহযোগীতায় শিশুটির ধারন করা ওডিও বক্তব্য শুনি। একই সাথে শিশুটির বাবার সাথে কথা বলি। তাদের বক্তব্য শুনে আমি বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি অভিযুক্ত তপনকে আটক করার পরামর্শ দেন। এরপর বিষয়টি সদর থানার ওসিকে অবগত করলে তিনি পুলিশ পাঠিয়ে গত রাতেই তপনকে আটক করে থানায় নিয়ে যান।

এ বিষয় মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শুক্রবার জানান, মেয়েটির চাচা জানিয়েছে তাদের এ বিষয়ে কোন অভিযোগ না করতে আটক তপনের পক্ষে স্থানীয় এক নেতা টাকার প্রলোভন ও ভয়ভীত দেখাচ্ছে। এমনকি মেয়ের চাচাকে রামচন্দ্রপুর এলাকার আলোমগীর হোসেন ওরফে আলোমগীর মাষ্টার ( প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক) তাকে একাধিকবার মামলা না করে শালিশি বৈঠকে বসার জন্য প্রস্তাব দেয় বলেও জানান তিনি।