• ঢাকা
  • শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:০৪ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে কাঠোর লকডাউনে চায়ের দোকানে স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর হেলেনূরের লাইসেন্স বানিজ্য


প্রকাশের সময় : জুলাই ৬, ২০২১, ৭:২১ অপরাহ্ন / ১৮০
ঝালকাঠিতে কাঠোর লকডাউনে চায়ের দোকানে স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর হেলেনূরের লাইসেন্স বানিজ্য

ইমাম বিমান,ঝালকাঠিঃ ঝালকাঠিতে কাঠোর লকডাউন চলাকালে চায়ের দোকানে দোকানে স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর হেলেনূরের লাইসেন্স বানিজ্য এখন জমজমাট। কোভিড-১৯ তথা করোনা ভাইরাস সংক্রামন প্রতিরোধে একদিকে দেশে কঠোর লকডাউন চলছে ঠিক অপরদিকে হাট-বাজারে খোলা চায়ের দোকান বন্ধ করতে না বলে উল্টো লাইসেন্স বানিজ্যে ব্যস্ত ঝালকাঠি সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের কর্মরত সদর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর হেলেনূর বেগম।

ঝালকাঠি সদর উপজেলাধীন নবগ্রামে হাটে চায়ের দোকান, মুদি দোকানে সেনেটারি লাইসেন্স নবায়নের জন্য অবসরপ্রাপ্ত চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারীকে নিয়ে প্রতি দোকান থেকে ৫০০-৬০০ টাকা করে নিচ্ছেন। দোকানদারদের মধ্য কেউ কেউ পুরো টাকা না দিতে পারলেও লাইসেন্সের জন্য অর্ধক ২৫০- ৩০০টাকা দিচ্ছেন আর সেই টাকা সেনেটারি ইন্সেপেক্টর হেলেনা হাত পেতে নিচ্ছেন।

এ বিষয় জেলা স্বাস্থ্য অধিপ্তারাধীন সদর উপজেলার এক কর্মকর্তার কাছে তার মুঠোফোনে কল দিয়ে জানতে চাওয়া হলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐ কর্মকর্তা জানান, করোনা ভাইরাস সংক্রামন প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত লকডাউনে যেখানে কোন চায়ের দোকান খোলা রাখা নিষেধ সেখানে লাইসসেন্সের কোন প্রশ্নই আসেনা। এ বিষয় তিনি আরো জানান, এ বিষয় তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ পেলে প্রমান সাপেক্ষে আমরা ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

অনুসন্ধানে জানাযায়, ঝালকাঠি জেলা স্বাস্থ্য অধিদপ্তারাধীন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের সদর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর হেলেনূর বেগম দীর্ঘদিন যাবৎ সদর উপজেলায় কর্মরত থেকে উপজেলাধীন প্রত্যেক ইউনিয়নের হাট-বাজারের দোকান থেকে লাইসেন্সের জন্য ৫০০-৬০০টাকা করে হেলেনা নিজ হাতে নিয়ে থাকে। লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হলে পুরাতন কপি বাজারে বাজারে গিয়ে লাইসেন্সের পুরাতন কপি সংগ্রহ করেন একই সাথে নবায়নের জন্য তার ব্যক্তিগত মনগড়া নির্ধারিত ফি’র সমপরিমান অথবা অর্ধেক টাকা নিয়ে যান। লাইসেন্সের কাগজ সম্পন্ন হলে কখনো কখনো তিনি নিজে অথবা অবসর প্রাপ্ত কর্মচারী সোবাহানের মাধ্যমে বাকি টাকা আদায় পূর্বক নবায়তকৃত লাইসেন্স কপি দোকানদারদেরকে ফিরিয়ে দেন।

এ বিষয় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের সদর উপজেলা স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর হেলেনূর বেগমের কাছে চায়ের দোকানের স্যানিটারি লাইসেন্সের জন্য কত টাকা প্রয়োজন জানতে চাওয়ায় তিনি ৬০০ টাকা প্রয়োজন বলে জানান। এছারাও দোকানে দোকানে এসে আপনি নিজ হাতে টাকা লেনদেন করার মাধ্যমে লাইসেন্স নবায়ন করতে পারেন কি না ? জানতে চাওয়ায় তিনি দোকানদারদের সাথে নগদ লেনদেন করতে পারবেন বলে জানান। লকডাউনের মধ্যে আপনাদের লাইসেন্স নবায়ন কার্যক্রম চালু আছে কি ? জানতে চাইলে তিনি লাইসেন্স নবায়ন কার্যক্রম চালু আছে বলে জানান।

এ বিষয় ঝালকাঠি সিভিল সার্জন ডা: রতন কুমার ঢালীর মুঠোফোনে কল দিয়ে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।