• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:০২ পূর্বাহ্ন

জেলা পরিষদ নির্বাচন : নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনে এমপির নেতৃত্বে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৬, ২০২২, ১২:৩৪ অপরাহ্ন / ২১
জেলা পরিষদ নির্বাচন : নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনে এমপির নেতৃত্বে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলে জেলা পরিষদ নির্বাচনে নড়াইল-১ আসনের এমপি কবিরুল হক মুক্তির নেতৃত্বে প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ড (কালিয়া উপজেলা) সাধারণ সদস্য পদে প্রার্থী কালিয়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রবিউল ইসলাম খানকে সঙ্গে নিয়ে এমপি মুক্তির নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র ক্যাডার বাহিনী কালিয়া পৌর ভবনে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। এতে এক গাড়িচালক আহত হন। শনিবার রাত ১০ টার দিকে কালিয়া পৌর ভবনে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রার্থীর অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে কালিয়া পৌর ভবনে মেয়র ওয়াহিদুজ্জামান হীরার উপস্থিতিতে প্রতিপক্ষ প্রার্থী শাহীন সাজ্জাদ খান পলাশ ও তার লোকজন মিটিং করছেন এমন খবর পায় এমপি মুক্তি। এরপর রাত ১০টা ৫ মিনিটে তার সমর্থিত প্রার্থী রবিউল ইসলাম খানকে সঙ্গে নিয়ে এমপি মুক্তি একদল সশস্ত্র ক্যাডার বাহিনী নিয়ে পৌর ভবনে হামলা চালায়। এ সময় ভবনের নিচতলায় তালাবদ্ধ থাকায় প্রতিপক্ষ প্রার্থী ও তার লোকজনকে লক্ষ্য করে অশ্লীল ভাষায় গালি-গালাজ করে এবং কালো ও সাদা রংয়ের দু’টি প্রাইভেট গাড়ি ভাঙচুর ও চালককে মারপিট করে। এ সময় হামলাকারীরা শর্ট গানের গুলি ছোঁড়ে।

এ প্রসঙ্গে কালিয়া পৌর মেয়র ওয়াহিদুজ্জামান হীরা বলেন, পরিকল্পিত ভাবে বিদ্যুৎ লাইন বিচ্ছিন্ন করে এমপি মুক্তি তার সমর্থিত প্রার্থী রবিউল ইসলাম খানকে সঙ্গে নিয়ে তার নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র ক্যাডার বাহিনী পৌর ভবনে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। এমপি মুক্তি ও তার ক্যাডার বাহিনী আমাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। বিষয়টি সিসিটিভি ফুটেজে ধারণ করা আছে। এটি ইতিমধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

একই প্রসঙ্গে কালিয়া থানার ওসি শেখ তাসমীম আলম বলেন, খবর পেয়ে দ্রুতই ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।