• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

চাকরি নয়, সেবা -এ স্লোগানে গোপালগঞ্জে ১২০ টাকায় পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ পেলেন ২৯ তরুণ-তরুণী


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ৬, ২০২৪, ১২:১৬ পূর্বাহ্ন / ৬৩
চাকরি নয়, সেবা -এ স্লোগানে গোপালগঞ্জে ১২০ টাকায় পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ পেলেন ২৯ তরুণ-তরুণী

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে নিয়োগ জানুয়ারি-২০২৪ এর  চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

‘চাকরি নয়, সেবা’ এই শ্লোগানে গোপালগঞ্জ জেলায় নিয়োগ যোগ্য শূণ্য পদের বিপরীতে বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি অনুসরণ করে শতভাগ মেধা, যোগ্যতা ও স্বচ্ছতার মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে নিয়োগ, জানুয়ারী-২০২৪ এর চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ  জেলার নিয়োগ বোর্ডের সভাপতি পুলিশ সুপার আল-বেলী আফিফা পিপিএম মহোদয় পুলিশ লাইন্স ড্রিল শেডে বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) দুপুর ২ টায় আনুষ্ঠানিকভাবে টিআরসি নিয়োগ কার্যক্রমের সকল ইভেন্টে কৃতকার্য প্রার্থীদের লিখিত, মনস্তাত্ত্বিক ও মৌখিক পরীক্ষার প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধাক্রম অনুযায়ী চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের নাম ও ফলাফল ঘোষণা করেন এবং জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

পুলিশ সুপার মহোদয় তার বক্তব্যে চূড়ান্ত ভাবে উত্তীর্ণদের অভিনন্দন জানিয়ে সততা, নিষ্ঠা ও পেশাদারিত্ব সাথে দেশসেবার মনোভাব নিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কাজ করার আহবান জানান। উল্লেখ্য, মাত্র ১২০ টাকা আবেদন ফি’তে এই চাকুরীটি উক্ত ২৯ জন প্রার্থী নিশ্চিত করেন।

এ সময় নিয়োগ বোর্ডের সদস্য শরিয়তপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) তানভির হায়দার, মাদারীপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আলাউল হাসান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) লুৎফুল কবির চন্দন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ খায়রুল আলম, সহকারী পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) মো:শফিকুল ইসলাম, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আনিচুর রহমান সহ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা, প্রার্থী ও তাদের অভিভাববৃন্দ এবং জেলায় বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গোপালগঞ্জ জেলার ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল ২৯ জনের শূন্য পদের বিপরীতে প্রিলিমিনারি স্ক্রিনিং শেষে ১৩০৪ জন প্রার্থী শারীরিক মাপ, শারীরিক সক্ষমতা যাচাই পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পান। পরবর্তীতে ২৬৬ জন লিখিত পরীক্ষা অংশগ্রহণ করে এবং লিখিত পরীক্ষায় ৫৫ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়ে মৌখিক (ভাইভা) পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে তন্মধ্যে চূড়ান্তভাবে বিভিন্ন শ্রেনীতে ২৯ জনকে মনোনীত করে গোপালগঞ্জ  জেলা টিআরসি নিয়োগ বোর্ড৷