• ঢাকা
  • সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৫০ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জে সকলকে সাথে নিয়ে আধুনিক ও পরিকল্পিত নগরী গড়তে চান মেয়র প্রার্থী এস.এম নজরুল ইসলাম


প্রকাশের সময় : মে ২০, ২০২২, ১:১৫ পূর্বাহ্ন / ১০৩
গোপালগঞ্জে সকলকে সাথে নিয়ে আধুনিক ও পরিকল্পিত নগরী গড়তে চান মেয়র প্রার্থী এস.এম নজরুল ইসলাম

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জঃ আগামী ১৫ জুন আসন্ন গোপালগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন-২০২২ অনুষ্ঠিত হবে। গোপালগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন উন্মুক্ত করায় বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং গোপালগঞ্জ-২ আসনের বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ড.শেখ ফজলুল করিম সেলিমকে প্রানঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আসন্ন গোপালগঞ্জ পৌর নির্বাচনে মেয়রপ্রার্থী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও ঠিকাদার এবং সমাজসেবক এস.এম নজরুল ইসলাম (নুতন)।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং জীবন্ত কিংবদন্তী ও গোপালগঞ্জ উন্নয়নের রূপকার, মাটি ও মানুষের প্রিয়নেতা শেখ সেলিম এমপির হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে এবং দেশজূড়ে চলমান উন্নয়নের ধারাবিহিকতা সমুন্নত রাখতে সেবক হিসাবে পৌরবাসীর পাশে থেকে কাজ করতে চান তিনি।

পৌরনির্বাচনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যেই মানবিক এই মানুষটি তার মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। পৌর নির্বাচনে মেয়রপ্রার্থী এস.এস নজরুল ইসলাম (নুতন) গনমাধ্যমকর্মীদের মাধ্যমে সম্মানীত পৌরভোটাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমি পৌরসভা নির্বাচনে একজর সাধারন মেয়র প্রার্থী। আপনাদের দোয়া, ভালোবাসা, সমর্থন এবং মূল্যবান ভোটে আমি গোপালগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হলে, আপনাদের সকলকে সাথে নিয়ে আগামী দিনের সুপরিকল্পিত নগরী গড়তে প্রথমে শহরের তীব্র যানজট নিরসনে বাস্তব ও কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়া, পৌর এলাকায় শিক্ষা এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন, শহরের পয়ঃনিস্কাশন, ড্রেনেজ সুবিধা, নিরাপদ সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা সহ শহরের অবহেলিত এলাকায় প্রয়োজনীয় রাস্তাঘাট, ব্রীজ, কালভার্ট নির্মাণ করে এলাকার জনদুর্ভোগ লাঘবে নিরলসভাবে কাজ করে যাবো ইনশাল্লাহ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নিজহাতে প্রতিষ্ঠিত ঐতিহ্যবাহী এ পৌরসভাকে একটি আধুনিক ও মডেল পৌরসভায় রূপান্তরিত করবো ইনশাল্লাহ। পৌরবাসীর বেকারত্ব দুর ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করবো। আমি গোপালগঞ্জ শহরের মিয়াপাড়া এলাকায় ছোট থেকে বড় হয়েছি। আমি আপনাদেরই সন্তান, আমি নিজে অনেক কষ্ট করে আপনাদের দোয়ায় জীবনে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছি। আলহামদুলিল্লাহ বর্তমানে আমার চাওয়া-পাওয়ার তেমন কিছুই বাকি নেই। একমাত্র সন্তান দেশের বাহিরে থাকে। ভবিষ্যতে দেশে ফিরবে কি না জানানেই। এখন আমি পৌরবাসীর খেদমত করতে পৌর নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হয়েছি। তিনি আরো বলেন, বিগত মেয়রগণ যুব সমাজের বেকারত্ব নিয়ে খুব একটা ভাবেননি। আমি বেকারত্ব দুর করে পৌরবাসীর ভাগ্য উন্নয়নে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চাই। আমার অনেক পরিকল্পনা রয়েছে, আপনাদেরকে সাথে নিয়ে সেদিকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করে যাবো। যা অতীতে কোন মেয়রগণ চিন্তাও করেননি, করলে জেলায় বেকারত্বের হার নিয়ন্ত্রণে থাকতো। তাই পৌর ভোটারদের নিকট আমার আকুল আবেদন, আমাকে একটিবার আপনাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন।

অতীতেও অসহায়, দুঃখী ও মেহনতী মানুষের পাশে আমি ছিলাম, আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো ইনশাল্লাহ। সর্বোপরি বলতে চাই, দলমত নির্বিশেষে জনগণ যাকে যোগ্য মনে করে গোপালগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত করবেন। আধুনিক, পরিকল্পিত ও নিরাপদ নগরী গড়তে সকলেই তাকে সার্বিক সহযোগিতা করবো। আপনারা বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ সেলিম ভাইয়ের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনায় দোয়া করবেন। জয়বাংলা, জয়বঙ্গবন্ধু।