• ঢাকা
  • বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১০:১৩ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জে মুজিব জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আবাহনী ক্রীড়াচ


প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১৮, ২০২১, ৮:৪৪ অপরাহ্ন / ৫৮০
গোপালগঞ্জে মুজিব জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আবাহনী ক্রীড়াচ

কে এম সাইফুর রহমান,গোপালগঞ্জঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে আবাহনী ক্রীড়াচক্রের উদ্যোগে গোপালগঞ্জে ২০০ বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ আবাহনী ক্রীড়াচক্রের উদ্যোগে বুধবার বেলা ১১টায় স্থানীয় শেখ ফজলুল হক মণি স্মৃতি মিলনায়তনে পরিপূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদেরকে এ সম্মাননা ও উপহার দেওয়া হয়েছে।

গোপালগঞ্জ জেলা আবাহনী ক্রীড়াচক্রের সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা চৌধুরী এমদাদুল হক, জেলা পুলিশ সুপার আয়েশা সিদ্দিকা পিপিএম, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ লুৎফার রহমান বাচ্চু, পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বদরুদ্দোজা বদর, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিকদার নূর মোহাম্মদ দুলু, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু হোসেন প্রমুখ।

এ সময় গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাশেদুর রহমান, জেলা গণপূর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী অমিত কুমার বিশ্বাস, জেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক চন্দ্র তালুকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ খায়রুল আলম, সহকারী কমিশনার মোঃ মামুন খান, জেলা কালচারাল কর্মকর্তা আল মামুন বিন সালেহ, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব এড. এম এম নাসির আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এড. জুলকদর রহমান, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ২১ ইউনিয়ন ও পৌরসভার সম্মানিত বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ সহ জেলায় বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মী বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা, অসাম্প্রদায়িক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশ ও জনগণের জন্য কাজ করতে এবং স্বাধীনতা বিরোধীদের সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে আহ্বান জানান।
পরে ‘৭১ -এর মহান মুক্তিযুদ্ধে এবং ‘৭৫ – এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারে নিহত সকল শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনায়, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন। পরে জেলা আবাহনী ক্রীড়াচক্রের পক্ষ থেকে আমন্ত্রিত ২০০ বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রত্যেকের হাতে সম্মাননা উপহারের প্যাকেট তুলে দেন প্রধান অতিথি সহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। উপহার সামগ্রীর মধ্যে ছিলো বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী, একটি শাড়ি ও লুঙ্গি, করোনা মোকাবেলায় মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান, সম্মানী বাবদ নগদ পাঁচশত টাকা ও প্যাকেট খাবার।