• ঢাকা
  • রবিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ১০:৪৪ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জে বর্ণিল শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভার মধ্যদিয়ে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২২, ২০২৩, ৭:৫২ অপরাহ্ন / ৫২
গোপালগঞ্জে বর্ণিল শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভার মধ্যদিয়ে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন

কে এম সাইফুর রহমান, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জে নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস–২০২৩ পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে রোববার সকাল ১০টায় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও বিআরটিএ ‘র যৌথ আয়োজনে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো.আমিনুর রহমান ও গোপালগঞ্জ বিআরটিএ -এর আঞ্চলিক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো.আবুল বাসারের নেতৃত্বে বের হওয়া শোভা যাত্রায় সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।

আইন মেনে সড়কে চলি, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শোভা যাত্রাটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে পুনরায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ফিরে শেষ হয়। এর আগে রংবেরঙের বেলুন উড়িয়ে দিবসটির শুভ সূচনা করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট। পরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ স্বচ্ছতা’য় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মাহবুবুল আলম।

বাংলাদেশ বেতারের সাবেক কর্মকর্তা মো.গোলাম মোস্তফার সঞ্চালনায় নিরাপদ সড়ক উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আমিনুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. গোলাম কবির, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. খায়রুল আলম, গোপালগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আজহারুল ইসলাম, বিআরটিএ ‘র আঞ্চলিক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আবুল বাসার, গোপালগঞ্জ জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজিঃ নং-১৯৪৭) এর সভাপতি মো. বুলবুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইদ প্রমূখ।

এসময় সওজ’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. আবদুল হালিম খান সহ জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সকল সদস্য ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সহ জেলায় বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভায় আমন্ত্রিত অতিথিগণ সড়ক দূর্ঘটনা রোধে দক্ষ চালক তৈরি, ট্রাফিক আইন মেনে চলা, ফিটনেস বিহীন যানবাহন চালানো থেকে বিরত থাকা, ক্লান্ত শরীরে চোখে ঘুম নিয়ে ও নেশাগ্রস্ত অবস্থায় যানবাহন না চালানোর প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।