• ঢাকা
  • সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন

গোপালগঞ্জে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ


প্রকাশের সময় : মার্চ ২৭, ২০২৩, ৫:১৩ অপরাহ্ন / ৬০
গোপালগঞ্জে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী শ্রাবনী আক্তারকে (১৯) মারধর করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী হাসান বেপারীর (২৩) বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের শাশুড়ী হেনা বেগম (৪৮) ও বড় জা মিতা আক্তারকে (২০) আটক করেছে। এ ঘটনার পর ঘাতক স্বামী হাসান বেপারী পলাতক রয়েছে। সোমবার ভোরে মুকসুদপুর উপজেলার দিগনগর ইউনিযনের সৈর্দ্দী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মুকসুদপুর থানার সিন্দিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো: শওকত হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত শ্রাবনী আক্তার মুকসুদপুর উপজেলার দিগনগর ইউনিযনের সৈর্দ্দী গ্রামের দেলোয়ার শেখের মেয়ে।

সিন্দিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো: শওকত হোসেন জানান, মুকসুদপুর উপজেলার দিগনগর ইউনিয়নের সৈর্দ্দী গ্রামের দেলোয়ার শেখের মেয়ে শ্রাবনী আক্তারের সাথে একই গ্রামের তারা বেপারীর ছেলে হাসান বেপারীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত এক বছর পূর্বে এই প্রেমের সম্পর্ক এক পর্যায় উভয় পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে স্বামী হাসানের বেকারত্ব ও নেশা করাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্ত্রী শ্রাবনীর সাথে কলহ চলে আসছিল। এর জেরে আজ সোমবার ভোরে স্বামী হাসান বেপারী স্ত্রী শ্রাবনীকে মারধর করে। পরে স্ত্রী শ্রাবনীর চিৎকারে পার্শ্ববর্তী লোকজন এগিয়ে এসে শ্রাবনীকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকেরহাট প্রাইভেট হাসপাতালে আনার পথে শ্রাবনী মারা যায় ।

তিনি আরো জানান, মরদেহের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের শাশুড়ী ও বড় জাকে আটক করা হয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।