• ঢাকা
  • বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৫১ অপরাহ্ন

গোপালগঞ্জে জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন ও পৃথক নির্বাচন ব্যবস্থা পূণ : প্রতিষ্ঠার দাবীতে মানববন্ধন


প্রকাশের সময় : মার্চ ১১, ২০২৩, ২:৫৬ অপরাহ্ন / ৫২
গোপালগঞ্জে জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন ও পৃথক নির্বাচন ব্যবস্থা পূণ : প্রতিষ্ঠার দাবীতে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোপালগঞ্জঃ গোপালগঞ্জে জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন ও পৃথক নির্বাচন ব্যবস্থা পূণ: প্রতিষ্ঠার দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট, গোপালগঞ্জ শাখা এ কর্মসূচী পালন করে।

শনিবার দুপুরে স্থানীয় প্রেসক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু সড়কের উপর দাঁড়িয়ে হাতে হাত ধরে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে নেতৃবৃন্দ। এ সময় জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন ও পৃথক নির্বাচন ব্যবস্থা পূণ: প্রতিষ্ঠার দাবীতে বিভিন্ন ধরনের লেখা প্লাকার্ড প্রদর্শন করে মানববন্ধনকারীরা। এ মানববন্ধনে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু ছাত্র মহাসংঘ জেলা শাখা ও বাংলাদেশ খ্রীস্টান লীগ একাত্মতা ঘোষনা করে মানববন্ধনে অংশ নেয়।

মানববন্ধন চলাকালে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট, জেলা শাখার সভাপতি বিল্লমঙ্গল মজুমদার, সাধারন সম্পাদক লিটন মজুমদার, বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু ছাত্র মহাসংঘ জেলা শাখার সভাপতি চন্দন মন্ডল, প্রচার সম্পাদক রাজীব হালদার, বাংলাদেশ খ্রীস্টান লীগের উপদেষ্ঠা ডেভিড বৈদ্য বক্তব্য রাখেন।

এ সময় বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট, জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক লিটন মজুমদার বলেন, দেশ স্বাধীনের পর হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর ব্যাপকভাবে নিয্যাতন চলছে। ১৯৪৭ সালে ভারত ভাগ হয়ে দেশ স্বাধীনের পর দেশে মোট জনসংখ্যার ৭.৯৫ ভাগ হিন্দু সম্প্রদায়। ২০১৫ সালের পর মাত্র ছয় বছরে হিন্দু সম্প্রদায়ের সংখ্যা কমেছে ২.৮ ভাগ। এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে অচিরেই হিন্দু সম্প্রদায় শুন্য হবে দেশ।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় সংসদ সর্বদা নীরব ভূমিকা পালন করেছে। বর্তমানে বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে ১৬ জন্য হিন্দু এমপি থাকলেও সমস্যা নিরসরে কোন ভূমিকা নেই। ২০০১ সালে বিএনপি জামাত নির্বাচনী হয়ে হবার পর সারাদেশে বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলে হিন্দুদের উপর ব্যপকভাবে হামলা ও নির্যাতন করে। বিএনপি জামাত সেই সময় কোন বিচার না করায় ২০০৯ সালে একটি কমিশন গঠন হয়। কমিশন একটি রিপোর্ট পেশ করলেও কোন বিচার হয়নি। দ্রæত জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন ও পৃথক নির্বাচন ব্যবস্থা পূণ: প্রতিষ্ঠার দাবী জানান তিনি।